ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

কুলাউড়ায় পিইসিই পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ

দেশদিগন্ত ডেক্স
  • আপডেটের সময় : ০৫:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭
  • / ৯৫০ টাইম ভিউ

কুলাউড়া উপজেলায় পিইসিই পরীক্ষায় গিয়াস নগন দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিভাবকরা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। কিন্তু অভিযোগের পরও অনিয়ম বন্ধ হয়নি বলে জানা গেছে।

অভিভাবকদের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, গিয়াস নগর দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে হল সুপারের দায়িত্বে আছেন কুলাউড়া বশিরুল হোসেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল কাইয়ুম। উক্ত কেন্দ্রে তার স্ত্রী হাছনা বেগমের কুলাউড়া গ্রাম মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে।

১৯ নভেম্বর ইংরেজি পরীক্ষায় ১ নং কক্ষে পর্যবেক্ষক শরীফ আহমদ কুলাউড়া গ্রাম মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের উত্তর লিখতে সহায়তা করেন। উক্ত শরীফ আহমদ ওই স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ান বলে জানা গেছে। এছাড়া গৌড়করণ দাখিল মাদরাসার শিক্ষক ফারুক আহমদ ওই কেন্দ্রে একজন পর্যবেক্ষক। উক্ত শিক্ষকের মেয়ে এই কেন্দ্রের একজন পরীক্ষার্থী। তিনিও প্রকাশ্যে তার মেয়েকে উত্তর লিখতে সহায়তা করেন বলে জানা গেছে।

এদিকে তাৎক্ষণিকভাবে ২০ নভেম্বর পরীক্ষার্থী নিয়ে আসা অভিভাবকরা বিষয়টি জানতে পেরে ক্ষুব্ধ হন। কিন্তু হল সুপার ঘটনার কোন প্রতিকার না করে পরের দিন পাশ^বর্তী ২নং কক্ষে অভিযুক্ত শিক্ষককে দায়িত্ব পালনের সুযোগ দেন। একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে পরের দিন। অভিভাবকরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগের অনুলিপি দিয়েছেন।

এব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী মো. গোলাম রাব্বি জানান, আমি ছুটিতে ছিলাম, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় পিইসিই পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ

আপডেটের সময় : ০৫:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭

কুলাউড়া উপজেলায় পিইসিই পরীক্ষায় গিয়াস নগন দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিভাবকরা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। কিন্তু অভিযোগের পরও অনিয়ম বন্ধ হয়নি বলে জানা গেছে।

অভিভাবকদের লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, গিয়াস নগর দাখিল মাদরাসা কেন্দ্রে হল সুপারের দায়িত্বে আছেন কুলাউড়া বশিরুল হোসেন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুল কাইয়ুম। উক্ত কেন্দ্রে তার স্ত্রী হাছনা বেগমের কুলাউড়া গ্রাম মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দিচ্ছে।

১৯ নভেম্বর ইংরেজি পরীক্ষায় ১ নং কক্ষে পর্যবেক্ষক শরীফ আহমদ কুলাউড়া গ্রাম মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের উত্তর লিখতে সহায়তা করেন। উক্ত শরীফ আহমদ ওই স্কুলের শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ান বলে জানা গেছে। এছাড়া গৌড়করণ দাখিল মাদরাসার শিক্ষক ফারুক আহমদ ওই কেন্দ্রে একজন পর্যবেক্ষক। উক্ত শিক্ষকের মেয়ে এই কেন্দ্রের একজন পরীক্ষার্থী। তিনিও প্রকাশ্যে তার মেয়েকে উত্তর লিখতে সহায়তা করেন বলে জানা গেছে।

এদিকে তাৎক্ষণিকভাবে ২০ নভেম্বর পরীক্ষার্থী নিয়ে আসা অভিভাবকরা বিষয়টি জানতে পেরে ক্ষুব্ধ হন। কিন্তু হল সুপার ঘটনার কোন প্রতিকার না করে পরের দিন পাশ^বর্তী ২নং কক্ষে অভিযুক্ত শিক্ষককে দায়িত্ব পালনের সুযোগ দেন। একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে পরের দিন। অভিভাবকরা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগের অনুলিপি দিয়েছেন।

এব্যাপারে কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী মো. গোলাম রাব্বি জানান, আমি ছুটিতে ছিলাম, বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখছি।