ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় নির্ধারিত সময়ে দোকান বন্ধ না করায় জরিমানা

কুলাউড়া প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ০৩:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুন ২০২০
  • / ৩৫৬ টাইম ভিউ

কুলাউড়া উপজেলায় সরকারি নির্ধারিত সময়ের পরেও দোকানপাঠ খোলা রাখা ও মুখে মাস্ক না পরায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল রোববার (২৮ জুন) বিকেল ৫ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত পৃথকভাবে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম ফরহাদ চৌধুরী এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম। এসময় ১৫ দোকানী এবং মাস্কবিহীন অযথা ঘোরাঘুরির অপরাধে ৬ জন পথচারীকে ২২ হাজার ১ শত টাকা জরিমানা করা হয়।

জানা যায়, কুলাউড়ার ইউএনও এটিএম ফরহাদ চৌধুরী উপজেলার ব্রাম্মণবাজারে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে বিকেলে ৪ টার পরও দোকানপাঠ খোলা রাখার অপরাধে ব্রাম্মণবাজারের ৭ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মুখে মাস্ক না পরে অযথা ঘোরাঘুরি করায় ৪ জন পথচারীকে মোট ৯ হাজার ৯ শত টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করেন।

অপরদিকে একই সময় কুলাউড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম কুলাউড়া শহর, চৌধুরী বাজার ও রবিরবাজার এলাকায় অভিযান চালান। অভিযানে কুলাউড়া শহরের মধুবনকে ১ হাজার টাকা, রাজমহলকে ৪ হাজার টাকা, চৌধুরী বাজারের রায়হান স্টোরকে ১ হাজার টাকা, ফয়সল স্টোরকে ১ হাজার টাকা, রবিরবাজারের মনির ট্রেডার্সকে ১ হাজার টাকা, মা ভেরাইটিজ স্টোরকে ১ হাজার টাকা, সানি ফ্রুটসকে ৫ শত টাকা, প্রিন্স সুপার শপকে ১ হাজার টাকা এবং শামীম স্টোরকে ১ হাজার টাকা এবং অভিযানের সময় মুখে মাস্ক না পরে অযথা ঘোরাঘুরি করার অপরাধে বেলাল মিয়াকে ৫ শত টাকা ও মনসুর আহমদকে ২ শত টাকাসহ মোট ১২ হাজার ২ শত টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করেন।

এদিকে উভয়স্থানে চলমান অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করে কুলাউড়া থানার পুলিশ ফোর্স। এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট এটিএম ফরহাদ চৌধুরী।#

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় নির্ধারিত সময়ে দোকান বন্ধ না করায় জরিমানা

আপডেটের সময় : ০৩:৪৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জুন ২০২০

কুলাউড়া উপজেলায় সরকারি নির্ধারিত সময়ের পরেও দোকানপাঠ খোলা রাখা ও মুখে মাস্ক না পরায় জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল রোববার (২৮ জুন) বিকেল ৫ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত পৃথকভাবে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে এ অভিযান পরিচালনা করেন কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এটিএম ফরহাদ চৌধুরী এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম। এসময় ১৫ দোকানী এবং মাস্কবিহীন অযথা ঘোরাঘুরির অপরাধে ৬ জন পথচারীকে ২২ হাজার ১ শত টাকা জরিমানা করা হয়।

জানা যায়, কুলাউড়ার ইউএনও এটিএম ফরহাদ চৌধুরী উপজেলার ব্রাম্মণবাজারে সরকারি নির্দেশ অমান্য করে বিকেলে ৪ টার পরও দোকানপাঠ খোলা রাখার অপরাধে ব্রাম্মণবাজারের ৭ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মুখে মাস্ক না পরে অযথা ঘোরাঘুরি করায় ৪ জন পথচারীকে মোট ৯ হাজার ৯ শত টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করেন।

অপরদিকে একই সময় কুলাউড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) নাজরাতুন নাঈম কুলাউড়া শহর, চৌধুরী বাজার ও রবিরবাজার এলাকায় অভিযান চালান। অভিযানে কুলাউড়া শহরের মধুবনকে ১ হাজার টাকা, রাজমহলকে ৪ হাজার টাকা, চৌধুরী বাজারের রায়হান স্টোরকে ১ হাজার টাকা, ফয়সল স্টোরকে ১ হাজার টাকা, রবিরবাজারের মনির ট্রেডার্সকে ১ হাজার টাকা, মা ভেরাইটিজ স্টোরকে ১ হাজার টাকা, সানি ফ্রুটসকে ৫ শত টাকা, প্রিন্স সুপার শপকে ১ হাজার টাকা এবং শামীম স্টোরকে ১ হাজার টাকা এবং অভিযানের সময় মুখে মাস্ক না পরে অযথা ঘোরাঘুরি করার অপরাধে বেলাল মিয়াকে ৫ শত টাকা ও মনসুর আহমদকে ২ শত টাকাসহ মোট ১২ হাজার ২ শত টাকা জরিমানা আরোপ ও তা আদায় করেন।

এদিকে উভয়স্থানে চলমান অভিযানে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করে কুলাউড়া থানার পুলিশ ফোর্স। এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট এটিএম ফরহাদ চৌধুরী।#