ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

কুলাউড়া প্রতিনিধি:
  • আপডেটের সময় : ০৯:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০২০
  • / ৪০০ টাইম ভিউ

কুলাউড়া থানা পুলিশ মুন্নি আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুরে কুলাউড়া গ্রাম এলাকা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়া কুলাউড়ার এক কোম্পানির সেলসম্যান হিসেবে কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী ও থানার এস আই রফিকুল ইসলাম।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাহিম মিয়া তার স্ত্রী মুন্নিকে নিয়ে কুলাউড়া গ্রামের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। আজকে দুপুর পর্যন্ত তাঁদের বাসার দরজা না খোলায় বাসার অন্য ভাড়াটিয়াদের সন্দেহ হলে তারা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ওই বাসা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ বলছে, বাসায় মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়াকে পাওয়া যায়নি। তিনি পলাতক রয়েছেন।

কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূ মুন্নির লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কিভাবে সে মারা গেছে ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে বলে ওসি জানান। #

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ায় গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী পলাতক

আপডেটের সময় : ০৯:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ জুলাই ২০২০

কুলাউড়া থানা পুলিশ মুন্নি আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) দুপুরে কুলাউড়া গ্রাম এলাকা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়া কুলাউড়ার এক কোম্পানির সেলসম্যান হিসেবে কর্মরত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী ও থানার এস আই রফিকুল ইসলাম।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নাহিম মিয়া তার স্ত্রী মুন্নিকে নিয়ে কুলাউড়া গ্রামের একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন। আজকে দুপুর পর্যন্ত তাঁদের বাসার দরজা না খোলায় বাসার অন্য ভাড়াটিয়াদের সন্দেহ হলে তারা কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে ওই বাসা থেকে গৃহবধূ মুন্নির লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ বলছে, বাসায় মুন্নির স্বামী নাহিম মিয়াকে পাওয়া যায়নি। তিনি পলাতক রয়েছেন।

কুলাউড়া থানার ওসি ইয়ারদৌস হাসান জানান, গৃহবধূ মুন্নির লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে কিভাবে সে মারা গেছে ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে বলে ওসি জানান। #