ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

কুলাউড়ার রাউৎগাঁওয়ে দু’টি কালভার্ট যেন মরণফাঁদ, ভোগান্তির শেষ নেই

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৪:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০১৯
  • / ৬৯৫ টাইম ভিউ

দেশ দিগন্ত ডেক্স: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের দু’টি কালভার্ট ভেঙ্গে গিয়ে যাতায়াত ব্যবস্থা মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ আকার ধারণ করার ফলে কালভার্টগুলো মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। এমনকি রাস্তা দু’টির অবস্থা খুবই নাজুক। রাস্তা দুটি এলাকায় প্রবেশের একমাত্র মাধ্যম হওয়ায় এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। কালভার্ট দু’টি মেরামতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নেই কোন উদ্যোগ। কালভার্টগুলো ঝুঁকিপূর্ণ থাকায় যে কোন সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে এমনটাই আশংকা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের হিংগাজিয়া বাজার থেকে রবিরবাজার সড়কের দূরত্ব প্রায় ৫ কিলোমিটার। হিংগাজিয়া বাজার থেকে অর্ধ কিলোমিটার পূর্ব দিকে অতিক্রম করলে বাম দিকের একটি কাঁচা রাস্তা রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডের তিলাশীজুরা গ্রামের ভিতর দিয়ে আমতলা বাজারে প্রধান সড়কের সাথে সংযুক্ত হয়েছে। এই রাস্তার প্রবেশমুখের কালভার্টটি দীর্ঘদিন থেকে ঝুঁকিপূর্ণ ও অর্ধভগ্ন অবস্থায় রয়েছে। রাত পোহালেই এ রাস্তা দিয়ে স্কুল, কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রী ও নানা শ্রেণী পেশার শত শত মানুষ নিয়মিত যাতায়াত করেন। কিন্তু কালভার্টটি ঝুকিপূর্ণ থাকার ফলে যেকোন সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। অন্যদিকে একই স্থানের ডানদিকের আরেকটি কাঁচা রাস্তার প্রবেশমুখে একটি কালভার্ট ভঙ্গুর আকার ধারণ করেছে। এই রাস্তাটি ইউনিয়নের আব্দা গ্রামের সাথে সংযুক্ত হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা, উপাধ্যক্ষ মোঃ জহিরুল ইসলাম বলেন, প্রথম কালভার্টটি দীর্ঘদিন থেকে ভেঙ্গে গেলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল ও ওয়ার্ড সদস্য তালেব আলীকে বারবার অবগত করলেও মেরামতের কোন উদ্যোগ নেননি। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুম এলে রাস্তাটি কর্দমাক্ত হয়ে পড়লে যাতায়াত ব্যবস্থা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। যার ফলে এলাকাবাসী সর্বদাই রাস্তা চলাচলে ভোগান্তিতে পড়েন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল বলেন, লোকাল গভর্নেন্স সাপোর্ট প্রোগ্রাম (এলজিএসপি) প্রকল্পের আওতায় কালভার্ট দুটি নতুন করে করার জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক অনুমোদিত হলে শীঘ্রই কালভার্ট দুটি নতুন করে তৈরি করা হবে।

পোস্ট শেয়ার করুন

কুলাউড়ার রাউৎগাঁওয়ে দু’টি কালভার্ট যেন মরণফাঁদ, ভোগান্তির শেষ নেই

আপডেটের সময় : ০৪:৫১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০১৯

দেশ দিগন্ত ডেক্স: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের দু’টি কালভার্ট ভেঙ্গে গিয়ে যাতায়াত ব্যবস্থা মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ আকার ধারণ করার ফলে কালভার্টগুলো মরণফাঁদে পরিণত হয়েছে। এমনকি রাস্তা দু’টির অবস্থা খুবই নাজুক। রাস্তা দুটি এলাকায় প্রবেশের একমাত্র মাধ্যম হওয়ায় এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। কালভার্ট দু’টি মেরামতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নেই কোন উদ্যোগ। কালভার্টগুলো ঝুঁকিপূর্ণ থাকায় যে কোন সময় বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে এমনটাই আশংকা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

জানা যায়, কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের হিংগাজিয়া বাজার থেকে রবিরবাজার সড়কের দূরত্ব প্রায় ৫ কিলোমিটার। হিংগাজিয়া বাজার থেকে অর্ধ কিলোমিটার পূর্ব দিকে অতিক্রম করলে বাম দিকের একটি কাঁচা রাস্তা রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ০৬ নং ওয়ার্ডের তিলাশীজুরা গ্রামের ভিতর দিয়ে আমতলা বাজারে প্রধান সড়কের সাথে সংযুক্ত হয়েছে। এই রাস্তার প্রবেশমুখের কালভার্টটি দীর্ঘদিন থেকে ঝুঁকিপূর্ণ ও অর্ধভগ্ন অবস্থায় রয়েছে। রাত পোহালেই এ রাস্তা দিয়ে স্কুল, কলেজ পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রী ও নানা শ্রেণী পেশার শত শত মানুষ নিয়মিত যাতায়াত করেন। কিন্তু কালভার্টটি ঝুকিপূর্ণ থাকার ফলে যেকোন সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। অন্যদিকে একই স্থানের ডানদিকের আরেকটি কাঁচা রাস্তার প্রবেশমুখে একটি কালভার্ট ভঙ্গুর আকার ধারণ করেছে। এই রাস্তাটি ইউনিয়নের আব্দা গ্রামের সাথে সংযুক্ত হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দা, উপাধ্যক্ষ মোঃ জহিরুল ইসলাম বলেন, প্রথম কালভার্টটি দীর্ঘদিন থেকে ভেঙ্গে গেলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল ও ওয়ার্ড সদস্য তালেব আলীকে বারবার অবগত করলেও মেরামতের কোন উদ্যোগ নেননি। বিশেষ করে বর্ষা মৌসুম এলে রাস্তাটি কর্দমাক্ত হয়ে পড়লে যাতায়াত ব্যবস্থা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। যার ফলে এলাকাবাসী সর্বদাই রাস্তা চলাচলে ভোগান্তিতে পড়েন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল জামাল বলেন, লোকাল গভর্নেন্স সাপোর্ট প্রোগ্রাম (এলজিএসপি) প্রকল্পের আওতায় কালভার্ট দুটি নতুন করে করার জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক অনুমোদিত হলে শীঘ্রই কালভার্ট দুটি নতুন করে তৈরি করা হবে।