ঢাকা , সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে…

‘কারাগারগুলোতে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ বিনা বিচারে বন্দি’

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ১০:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / ৭০৪ টাইম ভিউ

মানবাধিকার নেত্রী ও ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, দেশের কারাগারগুলোতে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ বিনা বিচারে বন্দি রয়েছে।

রোববার (০৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জে ‘মানবাধিকার, সংবিধান ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশের দুর্নীতির সূচক সম্পর্কে সুলতানা কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতি অনুসরণ করছেন। কিন্তু দুর্নীতির সূচকে বাংলাদেশ খুব খারাপ অবস্থানে রয়েছে।

তিনি বলেন, একটি তথ্য সবার জানা উচিত দুর্নীতির যে স্কোর রয়েছে সেখানে ১০০ মধ্যে যদি ৪৩ না পাই ততক্ষণ পর্যন্ত বলতে পারবো না দুর্ণীতি প্রতিরোধে ভাল ব্যবস্থা নিতে পেরেছি আমরা। কিন্তু আমার ২৫ থেকে ২৬ উঠলেই বলি ভালো করেছি, আবার ২৬ থেকে ২৮ উঠলেই বলি অনেক ভালো করেছি। নিঃসন্দেহে এটি ভালো। কিন্তু এর মানে এই না দুর্নীতিতে আমার ভালো করছি।

তিনি আরো বলেন, উত্তরাধিকার হতে হবে সু-উত্তারাধিকারী। উত্তরাধিকারকে সম্মৃদ্ধ করে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবে বেঁচে খাওয়া না। আমরা যেন মুক্তিযুদ্ধকে বেঁচে নিজের স্বার্থ উদ্ধার না করি। সেটাকে আরো সম্মৃদ্ধ করতে হবে।

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা এলাকায় অবস্থিত রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও মানবাধিকার বিভাগের আয়োজনে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান রাজিব প্রসাদ সাহা, ট্রাস্টিবোর্ডের সদস্য শ্রীমতি সাহা, কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পরিচালক সম্পা সাহা, রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রিবোর্ডর উপদেষ্টা সাবেক সচিব আবু আলম মো. শহীদ খানসহ অনেকে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রণদা প্রসাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসার ড. মনীন্দ্র কুমার রায়।

পোস্ট শেয়ার করুন

‘কারাগারগুলোতে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ বিনা বিচারে বন্দি’

আপডেটের সময় : ১০:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

মানবাধিকার নেত্রী ও ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেছেন, দেশের কারাগারগুলোতে দুই-তৃতীয়াংশ মানুষ বিনা বিচারে বন্দি রয়েছে।

রোববার (০৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জে ‘মানবাধিকার, সংবিধান ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান আলোচকের বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশের দুর্নীতির সূচক সম্পর্কে সুলতানা কামাল বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো ট্রলারেন্স নীতি অনুসরণ করছেন। কিন্তু দুর্নীতির সূচকে বাংলাদেশ খুব খারাপ অবস্থানে রয়েছে।

তিনি বলেন, একটি তথ্য সবার জানা উচিত দুর্নীতির যে স্কোর রয়েছে সেখানে ১০০ মধ্যে যদি ৪৩ না পাই ততক্ষণ পর্যন্ত বলতে পারবো না দুর্ণীতি প্রতিরোধে ভাল ব্যবস্থা নিতে পেরেছি আমরা। কিন্তু আমার ২৫ থেকে ২৬ উঠলেই বলি ভালো করেছি, আবার ২৬ থেকে ২৮ উঠলেই বলি অনেক ভালো করেছি। নিঃসন্দেহে এটি ভালো। কিন্তু এর মানে এই না দুর্নীতিতে আমার ভালো করছি।

তিনি আরো বলেন, উত্তরাধিকার হতে হবে সু-উত্তারাধিকারী। উত্তরাধিকারকে সম্মৃদ্ধ করে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। তবে বেঁচে খাওয়া না। আমরা যেন মুক্তিযুদ্ধকে বেঁচে নিজের স্বার্থ উদ্ধার না করি। সেটাকে আরো সম্মৃদ্ধ করতে হবে।

নারায়ণগঞ্জের শীতলক্ষ্যা এলাকায় অবস্থিত রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও মানবাধিকার বিভাগের আয়োজনে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রি বোর্ডের চেয়ারম্যান রাজিব প্রসাদ সাহা, ট্রাস্টিবোর্ডের সদস্য শ্রীমতি সাহা, কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের পরিচালক সম্পা সাহা, রণদা প্রসাদ সাহা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্ট্রিবোর্ডর উপদেষ্টা সাবেক সচিব আবু আলম মো. শহীদ খানসহ অনেকে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রণদা প্রসাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসার ড. মনীন্দ্র কুমার রায়।