ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

‘কামরান চত্বর’ কে সম্মত জানালেন সিসিক মেয়র আরিফ

দেশ দিগন্ত সিলেট ডেক্স:
  • আপডেটের সময় : ০৫:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০
  • / ৫৫৮ টাইম ভিউ

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) কার্যালয় তথা নগর ভবনের সামনের সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করা-না করা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠেছিল সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গন। পরিস্থিতি শান্ত হল মঙ্গলবার। সিসিকের মাসিক সভায় নগর ভবনের সামনের সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রস্তুত করে পাঠানো হবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে। সেখান থেকে অনুমোদন পেলে আনুষ্ঠানিকভাবে ওই পয়েন্ট হবে ‘কামরান চত্বর’।

সাবেক সিটি মেয়র ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরান করোনাক্রান্ত হয়ে গেল ১৫ জুন মারা যান। প্রায় তিন দশকের এই জনপ্রতিনিধির মৃত্যুর পর তাঁর স্মৃতিকে ধরে রাখতে সিলেট সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার দাবি তুলেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীও কামরান স্মরণে উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেন। গেল রবিবার সন্ধ্যার পর সিটি পয়েন্টে সিলেটি ঐতিহ্যের আদলে নির্মিত স্থাপনাকে ‘নগর চত্বর’ হিসেবে উদ্বোধন করেন আরিফ। এতে ক্ষুব্ধ হন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তারা গত সোমবার ওই চত্বরে ‘কামরান চত্বর’ লিখা সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেন। আওয়ামী লীগদলীয় কাউন্সিলররা বিষয়টি সিসিকের মাসিক সভায় উত্থাপনের কথা বলেন।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সিসিকের মাসিক সভায় বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার দাবি তুলেন। তবে কয়েকজন কাউন্সিলর আরো বড় কোনো স্থাপনাকে ‘কামরান চত্বর’ করার কথা বলেন। এ নিয়ে বিতর্কের এক পর্যায়ে মেয়র আরিফ সিটি পয়েন্টকেই ‘কামরান চত্বর’ হিসেবে ঘোষণা দেন। এছাড়া সভায় সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে বিভিন্ন সড়ক ও স্থাপনার নামকরণের জন্য জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়। এ কমিটির সুপারিশে স্থাপনা বা সড়কের নামকরণ করা হবে।

এদিকে, মাসিক সভা নিয়ে বিকালে নগর ভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে বিভিন্ন স্থাপনা ও সড়কের নামকরণের জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নামকরণের প্রস্তাব এসেছে। সবকিছু যাতে স্বচ্ছতার সাথে হয়, সেজন্য কমিটি করে দিয়েছি। এই কমিটির সুপারিশেই বিভিন্ন সড়ক বা স্থাপনার নাম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে করা হবে।’ মেয়র করোনাকালে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ ও সহায়তার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।#

পোস্ট শেয়ার করুন

‘কামরান চত্বর’ কে সম্মত জানালেন সিসিক মেয়র আরিফ

আপডেটের সময় : ০৫:৪২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ জুলাই ২০২০

সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) কার্যালয় তথা নগর ভবনের সামনের সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করা-না করা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠেছিল সিলেটের রাজনৈতিক অঙ্গন। পরিস্থিতি শান্ত হল মঙ্গলবার। সিসিকের মাসিক সভায় নগর ভবনের সামনের সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রস্তুত করে পাঠানো হবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে। সেখান থেকে অনুমোদন পেলে আনুষ্ঠানিকভাবে ওই পয়েন্ট হবে ‘কামরান চত্বর’।

সাবেক সিটি মেয়র ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য বদর উদ্দিন আহমদ কামরান করোনাক্রান্ত হয়ে গেল ১৫ জুন মারা যান। প্রায় তিন দশকের এই জনপ্রতিনিধির মৃত্যুর পর তাঁর স্মৃতিকে ধরে রাখতে সিলেট সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার দাবি তুলেন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীও কামরান স্মরণে উদ্যোগ নেওয়ার কথা বলেন। গেল রবিবার সন্ধ্যার পর সিটি পয়েন্টে সিলেটি ঐতিহ্যের আদলে নির্মিত স্থাপনাকে ‘নগর চত্বর’ হিসেবে উদ্বোধন করেন আরিফ। এতে ক্ষুব্ধ হন আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। তারা গত সোমবার ওই চত্বরে ‘কামরান চত্বর’ লিখা সাইনবোর্ড লাগিয়ে দেন। আওয়ামী লীগদলীয় কাউন্সিলররা বিষয়টি সিসিকের মাসিক সভায় উত্থাপনের কথা বলেন।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সিসিকের মাসিক সভায় বেশ কয়েকজন কাউন্সিলর সিটি পয়েন্টকে ‘কামরান চত্বর’ করার দাবি তুলেন। তবে কয়েকজন কাউন্সিলর আরো বড় কোনো স্থাপনাকে ‘কামরান চত্বর’ করার কথা বলেন। এ নিয়ে বিতর্কের এক পর্যায়ে মেয়র আরিফ সিটি পয়েন্টকেই ‘কামরান চত্বর’ হিসেবে ঘোষণা দেন। এছাড়া সভায় সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে বিভিন্ন সড়ক ও স্থাপনার নামকরণের জন্য জনপ্রতিনিধি ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়। এ কমিটির সুপারিশে স্থাপনা বা সড়কের নামকরণ করা হবে।

এদিকে, মাসিক সভা নিয়ে বিকালে নগর ভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘সিলেটের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে বিভিন্ন স্থাপনা ও সড়কের নামকরণের জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নামকরণের প্রস্তাব এসেছে। সবকিছু যাতে স্বচ্ছতার সাথে হয়, সেজন্য কমিটি করে দিয়েছি। এই কমিটির সুপারিশেই বিভিন্ন সড়ক বা স্থাপনার নাম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নামে করা হবে।’ মেয়র করোনাকালে সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ ও সহায়তার বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন।#