ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

করোনা উপসর্গ নিয়ে কুলাউড়ার বৃদ্ধের মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০
  • / ৪৭৪ টাইম ভিউ


কুলাউড়া প্রতিনিধি : কুলাউড়া উপজেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে (৬৫) বছরের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের কৌলারশি নিবাসী উক্ত বৃদ্ধ মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

পারিবারিকসুত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে তিনি করোনার উপসর্গসস হৃদরোগে ভুগছিলেন। এ অবস্থায় গত সোমবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে স্বজনরা তাকে নিয়ে রাতে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে সিলেট হাসপাতালে রেফার করেন। পরে রাতেই তাকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্ত্তি করা হয় ও পরদিন মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ডা. জন্মেজয় দত্ত জানান, উক্ত ব্যক্তি গত রাতে হাসপাতালে এসে ভর্তি হয়েছিলেন। তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এ নমুনা ওসমানীর ল্যাবে পরীক্ষা করা হবে বলে জানা গেছে।

বিকেলে মরহুমের লাশ সিলেট থেকে কুলাউড়ার তার নিজ বাড়ীতে নিয়ে গেলে খবর পেয়ে কুলাউড়া থানা পুলিশ সন্ধায় ঘটনাস্থলে যায় এবং স্বজনদের দ্রæত পারিবারিকভাবে লাশ দাফন করার পরামর্শ দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

করোনা উপসর্গ নিয়ে কুলাউড়ার বৃদ্ধের মৃত্যু

আপডেটের সময় : ০১:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুন ২০২০


কুলাউড়া প্রতিনিধি : কুলাউড়া উপজেলায় করোনা উপসর্গ নিয়ে (৬৫) বছরের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার কাদিপুর ইউনিয়নের কৌলারশি নিবাসী উক্ত বৃদ্ধ মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

পারিবারিকসুত্রে জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে তিনি করোনার উপসর্গসস হৃদরোগে ভুগছিলেন। এ অবস্থায় গত সোমবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে স্বজনরা তাকে নিয়ে রাতে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে সিলেট হাসপাতালে রেফার করেন। পরে রাতেই তাকে সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে ভর্ত্তি করা হয় ও পরদিন মঙ্গলবার (১৬ জুন) দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালের দায়িত্বরত কর্মকর্তা ডা. জন্মেজয় দত্ত জানান, উক্ত ব্যক্তি গত রাতে হাসপাতালে এসে ভর্তি হয়েছিলেন। তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়ার ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এ নমুনা ওসমানীর ল্যাবে পরীক্ষা করা হবে বলে জানা গেছে।

বিকেলে মরহুমের লাশ সিলেট থেকে কুলাউড়ার তার নিজ বাড়ীতে নিয়ে গেলে খবর পেয়ে কুলাউড়া থানা পুলিশ সন্ধায় ঘটনাস্থলে যায় এবং স্বজনদের দ্রæত পারিবারিকভাবে লাশ দাফন করার পরামর্শ দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।