ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
বাংলাদেশে কোটা আন্দোলনে হত্যার প্রতিবাদে পর্তুগালে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশী প্রবাসীরা প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর

করোনায় মারা গেলেন স্ত্রী, অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে উধাও আ’লীগ নেতা

দেশ দিগন্ত ডেক্স:
  • আপডেটের সময় : ০৯:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০
  • / ৪২২ টাইম ভিউ

করোনায় স্ত্রী মারা যাওয়ার দু’মাস পর তিন সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে নিয়ে তিন সন্তানের জনক আওয়ামী লীগ নেতা উধাও হয়েছেন।

পরকীয়ার টানে গত ৯ আগস্ট রাতে জুরাইন কালামিয়ার বাজার এলাকার আনিসুর রহমানের স্ত্রী সায়মা চৌধুরী বিথীকে (৩৫) নিয়ে পালিয়ে যান কেরানীগঞ্জের দোলেশ্বর এলাকার বাসিন্দা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য কাজী সুলতান মাহমুদ।

স্থানীয়রা জানান, ২০০৪ সালে দোলেশ্বর এলাকার নিয়ামত উল্লাহ চৌধুরীর মেয়ে সায়মা চৌধুরী বিথীর বিয়ে হয় জুরাইন এলাকার আনিসুর রহমানের সঙ্গে। দাম্পত্য জীবনে তাদের এক মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে।

অন্যদিকে কাজী সুলতান মাহমুদ দুই মেয়ে ও এক ছেলের জনক। বয়স আনুমানিক ৫৫ বছর। সায়মা চৌধুরী বিথী ও সুলতান মাহমুদ ধনাঢ্য ও প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য।

ঘটনার দুই দিন পর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। রাজনীতির পাশাপাশি সুলতান মাহমুদ একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। প্রায় দুই মাস আগে তিনি সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তবে সুলতান মাহমুদ সুস্থ হলেও তার স্ত্রী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান।
স্ত্রী মারা যাওয়ার কয়েক মাস আগে সুলতান মাহমুদ এক মেয়ের বিয়ে দেন।#

 

পোস্ট শেয়ার করুন

করোনায় মারা গেলেন স্ত্রী, অন্যের স্ত্রীকে নিয়ে উধাও আ’লীগ নেতা

আপডেটের সময় : ০৯:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০

করোনায় স্ত্রী মারা যাওয়ার দু’মাস পর তিন সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে নিয়ে তিন সন্তানের জনক আওয়ামী লীগ নেতা উধাও হয়েছেন।

পরকীয়ার টানে গত ৯ আগস্ট রাতে জুরাইন কালামিয়ার বাজার এলাকার আনিসুর রহমানের স্ত্রী সায়মা চৌধুরী বিথীকে (৩৫) নিয়ে পালিয়ে যান কেরানীগঞ্জের দোলেশ্বর এলাকার বাসিন্দা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য কাজী সুলতান মাহমুদ।

স্থানীয়রা জানান, ২০০৪ সালে দোলেশ্বর এলাকার নিয়ামত উল্লাহ চৌধুরীর মেয়ে সায়মা চৌধুরী বিথীর বিয়ে হয় জুরাইন এলাকার আনিসুর রহমানের সঙ্গে। দাম্পত্য জীবনে তাদের এক মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে।

অন্যদিকে কাজী সুলতান মাহমুদ দুই মেয়ে ও এক ছেলের জনক। বয়স আনুমানিক ৫৫ বছর। সায়মা চৌধুরী বিথী ও সুলতান মাহমুদ ধনাঢ্য ও প্রভাবশালী পরিবারের সদস্য।

ঘটনার দুই দিন পর বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। রাজনীতির পাশাপাশি সুলতান মাহমুদ একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। প্রায় দুই মাস আগে তিনি সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তবে সুলতান মাহমুদ সুস্থ হলেও তার স্ত্রী করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যান।
স্ত্রী মারা যাওয়ার কয়েক মাস আগে সুলতান মাহমুদ এক মেয়ের বিয়ে দেন।#