ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঔষধ প্রশাসন গণস্বাস্থ্যের কিট পরীক্ষার অনুমোদন দেয়নি

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১ মে ২০২০
  • / ২৩৮ টাইম ভিউ

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিটের সক্ষমতা পরীক্ষার অনুমতি দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এই মর্মে সংবাদ পরিবেশিত হচ্ছে যে গণস্বাস্থ্য উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিট পরীক্ষার জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিফেতর কর্তৃক অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে, যা সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষা করার জন্য সকল নিয়ম মেনে ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদিত সিআরও-৩: আইসিডিডিআরবি এবং সিআরও-১০: বিএসএমএমইউ কর্তৃক সম্পন্ন করার জন্য গণস্বাস্থ্যের আবেদনের প্রেক্ষিতে অনুমতি প্রদান করা হয়েছে।

উক্ত পারফরম্যান্স ট্রায়াল শেষে শেষে প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে, বৃহস্পতিবার দুপুরে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিটের সক্ষমতা পরীক্ষার অনুমতি দিয়েছে বলে জানান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি জানান, গতকাল বুধবার (২৯ এপ্রিল) এ অনুমতি দিয়ে চিঠি লেখে ঔষধ প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সেই চিঠি পেয়েছে বিএমএসএসইউ ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আরও বলেন, ‘ঔষধ প্রশাসন গবেষণার জন্য অনুমতি দিয়েছে। ঔষধ প্রশাসন গতকাল বিএমএসএসইউকে চিঠি লিখেছে, আজকে তারা পেয়েছে। আমরাও আজ পেয়েছি চিঠি। আমরা চাচ্ছিলাম যে, দুই লাইনের একটা চিঠি দেন, ফাইনালি তারা ব্যুরোক্রেসি (আমলাতান্ত্রিকতা) বাদ দিয়ে চিঠি দিয়েছে।’

‘বিএসএমএমইউ কীভাবে গবেষণা করবে, তাদের চাহিদা মতো মাল-মসলা দেব। আগামী শনিবার তাদের সঙ্গে আমরা এসব বিষয় নিয়ে বসবো’, যোগ করেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা।

পোস্ট শেয়ার করুন

ঔষধ প্রশাসন গণস্বাস্থ্যের কিট পরীক্ষার অনুমোদন দেয়নি

আপডেটের সময় : ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১ মে ২০২০

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিটের সক্ষমতা পরীক্ষার অনুমতি দেয়া হয়নি বলে জানিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এই মর্মে সংবাদ পরিবেশিত হচ্ছে যে গণস্বাস্থ্য উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিট পরীক্ষার জন্য ঔষধ প্রশাসন অধিফেতর কর্তৃক অনুমোদন প্রদান করা হয়েছে, যা সঠিক নয়। প্রকৃতপক্ষে কিটের কার্যকারিতা পরীক্ষা করার জন্য সকল নিয়ম মেনে ঔষধ প্রশাসন কর্তৃক অনুমোদিত সিআরও-৩: আইসিডিডিআরবি এবং সিআরও-১০: বিএসএমএমইউ কর্তৃক সম্পন্ন করার জন্য গণস্বাস্থ্যের আবেদনের প্রেক্ষিতে অনুমতি প্রদান করা হয়েছে।

উক্ত পারফরম্যান্স ট্রায়াল শেষে শেষে প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে পরবর্তী প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

এর আগে, বৃহস্পতিবার দুপুরে ঔষধ প্রশাসন অধিদফতর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত করোনা শনাক্তের কিটের সক্ষমতা পরীক্ষার অনুমতি দিয়েছে বলে জানান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

তিনি জানান, গতকাল বুধবার (২৯ এপ্রিল) এ অনুমতি দিয়ে চিঠি লেখে ঔষধ প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সেই চিঠি পেয়েছে বিএমএসএসইউ ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আরও বলেন, ‘ঔষধ প্রশাসন গবেষণার জন্য অনুমতি দিয়েছে। ঔষধ প্রশাসন গতকাল বিএমএসএসইউকে চিঠি লিখেছে, আজকে তারা পেয়েছে। আমরাও আজ পেয়েছি চিঠি। আমরা চাচ্ছিলাম যে, দুই লাইনের একটা চিঠি দেন, ফাইনালি তারা ব্যুরোক্রেসি (আমলাতান্ত্রিকতা) বাদ দিয়ে চিঠি দিয়েছে।’

‘বিএসএমএমইউ কীভাবে গবেষণা করবে, তাদের চাহিদা মতো মাল-মসলা দেব। আগামী শনিবার তাদের সঙ্গে আমরা এসব বিষয় নিয়ে বসবো’, যোগ করেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা।