ঢাকা , বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পূর্ব লন্ডনে বড়লেখার সোয়েব আহমেদের সমর্থনে মতবিনিময় সভা ইতালির ভেনিসে গ্রিন সিলেট ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন এর জরুরি সভা অনুষ্ঠিত ইতালির ভেনিসে এনটিভির ইউরোপের ডিরেক্টর সাবরিনা হোসাইন কে সংবর্ধনা দিয়েছে ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাব পর্তুগালে বেজা আওয়ামীলীগের কর্মি সভা পর্তুগাল এ ফ্রেন্ডশিপ ক্রিকেট ক্লাবের জার্সি উন্মোচন লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা

এমআইএসটিতে বিশ্বমানের সাইবার জিম প্রতিষ্ঠা করা হবে

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ অগাস্ট ২০১৯
  • / ২৭৭ টাইম ভিউ

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেনপ্রযুক্তির ব্যবহার যত বাড়বে সাইবার ঝুঁকিও তত বাড়বে। এই ঝুঁকি মোকাবেলায়
এখন থেকে আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। তা নাহলে আমরা পিছিয়ে যাবো। তিনিবলেন সাইবার ঝুঁকির প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সঅ্যান্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি) তে বিশ্বমানের সাইবার জিম স্থাপন করা হবে।শারীরিকভাবে সুস্থ সবল থাকতে আমরা যেমন জিমে যাই তেমনি সাইবার স্পেসে নিজেদের নিরাপদ রাখতে এই জিম তৈরি করা হবে যেখানে সবাই এক সাথে কাজ করার সুযোগ পাবে।প্রতিমন্ত্রী আজ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও এমআইএসটি এর যৌথ উদ্যোগে এমআইএসটি এর জেনারেল মোস্তাফিজ মাল্টিপারপাস হলে “বিশ্বব্যাপী সাইবার

হুমকি এবং বাংলাদেশের প্রস্তুতি” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। মেজর জেনারেল ওয়াহিদ উদ জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃব্য রাখেন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোঃ মাহফুজুর রহমান। প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন ইনস্টিটিউট অব পলিসি, এডভোকেসি এবং গভর্নেন্স এর চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ মুনির খসরু, জাতীয়
টেলিযোগাযোগ মনিটরিং কেন্দ্র এর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিয়াউল আহসান এবং জাতীয় ডাটা সেন্টার এর পরিচালক প্রকৌশলী তারিক বরকত উল্লাহ।এতে সঞ্চালনা করেন  এমআইএসটি এর কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রধান এয়ার কমোডর আফজাল হোসেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন ব্যক্তি, পরিবার, প্রতিষ্ঠান ও রাষ্ট্র; এই চারটি পর্যায়েই আমরা সাইবার ঝুঁকিতে রয়েছি। সকলে সচেতন হলেই সাইবার স্পেস নিরাপদ হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন তরুণ প্রজন্মকে এখন থেকে সাইবার ঝুকি মোকাবেলায় প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। তিনি সচেতন ও সতর্ক থেকে সক্ষমতা তৈরি করার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান। পলক বলেন সাইবার স্পেস নিরাপদ বিষয়ে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ২২টি ক্রিটিক্যাল
সিস্টেম ইনফরমেশন ইনফ্রাসট্রাকচার সনাক্ত করেছে এবং ন্যাশনাল ডিজিটাল আর্কিটেকচার তৈরি করেছে। এছাড়াও সক্ষমতা তৈরি করতে ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্ট এর আওতায় ডিজিটাল সিকিউরিটি কাউন্সিল, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি, সাইবার ইনসিডেন্স রেসপন্স টিম, ডিজিটাল ফরেনসি ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে বলে তিনি জানান। সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র
মন্ত্রণালয়, বিটিআরসি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, সেনা, নৌ, এবং বিমান বাহিনীসহ বিভিন্ন আন্তঃবাহিনী সংস্থাসমূহের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পদস্থ সামরিক/বেসামরিক কর্মকর্তা এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ ।

পোস্ট শেয়ার করুন

এমআইএসটিতে বিশ্বমানের সাইবার জিম প্রতিষ্ঠা করা হবে

আপডেটের সময় : ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ অগাস্ট ২০১৯

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেনপ্রযুক্তির ব্যবহার যত বাড়বে সাইবার ঝুঁকিও তত বাড়বে। এই ঝুঁকি মোকাবেলায়
এখন থেকে আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে। তা নাহলে আমরা পিছিয়ে যাবো। তিনিবলেন সাইবার ঝুঁকির প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্সঅ্যান্ড টেকনোলজি (এমআইএসটি) তে বিশ্বমানের সাইবার জিম স্থাপন করা হবে।শারীরিকভাবে সুস্থ সবল থাকতে আমরা যেমন জিমে যাই তেমনি সাইবার স্পেসে নিজেদের নিরাপদ রাখতে এই জিম তৈরি করা হবে যেখানে সবাই এক সাথে কাজ করার সুযোগ পাবে।প্রতিমন্ত্রী আজ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও এমআইএসটি এর যৌথ উদ্যোগে এমআইএসটি এর জেনারেল মোস্তাফিজ মাল্টিপারপাস হলে “বিশ্বব্যাপী সাইবার

হুমকি এবং বাংলাদেশের প্রস্তুতি” শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। মেজর জেনারেল ওয়াহিদ উদ জামান এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃব্য রাখেন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোঃ মাহফুজুর রহমান। প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন ইনস্টিটিউট অব পলিসি, এডভোকেসি এবং গভর্নেন্স এর চেয়ারম্যান ড. সৈয়দ মুনির খসরু, জাতীয়
টেলিযোগাযোগ মনিটরিং কেন্দ্র এর পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিয়াউল আহসান এবং জাতীয় ডাটা সেন্টার এর পরিচালক প্রকৌশলী তারিক বরকত উল্লাহ।এতে সঞ্চালনা করেন  এমআইএসটি এর কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রধান এয়ার কমোডর আফজাল হোসেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন ব্যক্তি, পরিবার, প্রতিষ্ঠান ও রাষ্ট্র; এই চারটি পর্যায়েই আমরা সাইবার ঝুঁকিতে রয়েছি। সকলে সচেতন হলেই সাইবার স্পেস নিরাপদ হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন তরুণ প্রজন্মকে এখন থেকে সাইবার ঝুকি মোকাবেলায় প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে। তিনি সচেতন ও সতর্ক থেকে সক্ষমতা তৈরি করার জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান। পলক বলেন সাইবার স্পেস নিরাপদ বিষয়ে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ ২২টি ক্রিটিক্যাল
সিস্টেম ইনফরমেশন ইনফ্রাসট্রাকচার সনাক্ত করেছে এবং ন্যাশনাল ডিজিটাল আর্কিটেকচার তৈরি করেছে। এছাড়াও সক্ষমতা তৈরি করতে ডিজিটাল সিকিউরিটি এ্যাক্ট এর আওতায় ডিজিটাল সিকিউরিটি কাউন্সিল, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সি, সাইবার ইনসিডেন্স রেসপন্স টিম, ডিজিটাল ফরেনসি ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে বলে তিনি জানান। সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র
মন্ত্রণালয়, বিটিআরসি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, সেনা, নৌ, এবং বিমান বাহিনীসহ বিভিন্ন আন্তঃবাহিনী সংস্থাসমূহের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পদস্থ সামরিক/বেসামরিক কর্মকর্তা এবং শিক্ষার্থীবৃন্দ ।