ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

এবার করোনায় ঢাবির সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরীর মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ মে ২০২০
  • / ৩৯৭ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। (ইন্না লিল্লাহি…রাজিউন)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে তিনি মারা যান। অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরী বর্তমানে ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ছিলেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘ঢাবির সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম করোনাতেই মারা গেছেন। গত পরশু দিন তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। পরে টেস্টে তার করোনা পজেটিভ এসেছে। এরপর থেকে তিনি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।’

ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন আরও বলেন, ‘তার আগে থেকেই কিছু শারীরিক জটিলতা ছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার রাত দেড়টার দিকে তিনি মারা গেছেন।’

এদিকে, অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম করোনায় মারা যায়নি বলে দাবি করেছেন ফারইস্ট ইন্টান্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো.মামুন। তিনি বলেন, ‘ভিসি স্যার হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন। তার করোনা হয়নি।’

গত পরশু দিন স্যারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বলেও জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার। মো.মামুন আরও বলেন, এর আগেও স্যারের (ড. নাজমুল করিম চৌধুরী) দুবার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। তার দুটা রিং পরানো আছে।

এদিকে, অধ্যাপক ড. নাজমুল করিমের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমাবেদনা জানান তিনি।

অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘তিনি একজন খ্যাতিমান শিক্ষক ছিলেন। তার এমন মৃত্যু আমাদের সবাইকে ব্যথিত করেছে। আমি উনার মাগফেরাত কামনা করছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার উনার অবদান শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে।’

পোস্ট শেয়ার করুন

এবার করোনায় ঢাবির সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরীর মৃত্যু

আপডেটের সময় : ০৩:৩৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ মে ২০২০

দেশদিগন্ত ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। (ইন্না লিল্লাহি…রাজিউন)।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে তিনি মারা যান। অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম চৌধুরী বর্তমানে ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ছিলেন।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘ঢাবির সাবেক অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম করোনাতেই মারা গেছেন। গত পরশু দিন তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। পরে টেস্টে তার করোনা পজেটিভ এসেছে। এরপর থেকে তিনি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।’

ডা. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন আরও বলেন, ‘তার আগে থেকেই কিছু শারীরিক জটিলতা ছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার রাত দেড়টার দিকে তিনি মারা গেছেন।’

এদিকে, অধ্যাপক ড. নাজমুল করিম করোনায় মারা যায়নি বলে দাবি করেছেন ফারইস্ট ইন্টান্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ডেপুটি রেজিস্ট্রার মো.মামুন। তিনি বলেন, ‘ভিসি স্যার হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছেন। তার করোনা হয়নি।’

গত পরশু দিন স্যারকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বলেও জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার। মো.মামুন আরও বলেন, এর আগেও স্যারের (ড. নাজমুল করিম চৌধুরী) দুবার হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল। তার দুটা রিং পরানো আছে।

এদিকে, অধ্যাপক ড. নাজমুল করিমের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমাবেদনা জানান তিনি।

অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান বলেন, ‘তিনি একজন খ্যাতিমান শিক্ষক ছিলেন। তার এমন মৃত্যু আমাদের সবাইকে ব্যথিত করেছে। আমি উনার মাগফেরাত কামনা করছি। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার উনার অবদান শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে।’