আপডেট

x


উইমেন্স মডেল কলেজের একাদশ শ্রেণির ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে A+ এর পেছনে না ছুটে আগে মানুষ হতে হবে …….প্রফেসর হারুনূর রশীদ

বৃহস্পতিবার, ০৪ জুলাই ২০১৯ | ৭:০৫ অপরাহ্ণ | 548 বার

উইমেন্স মডেল কলেজের একাদশ শ্রেণির ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে A+ এর পেছনে না ছুটে আগে মানুষ হতে হবে …….প্রফেসর হারুনূর রশীদ

নিজস্ব প্রতিনিধি: মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর সিলেট এর পরিচালক জনাব প্রফেসর হারুনূর রশীদ বলেছেন নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের শুধুমাত্র A+ এর পেছনে না ছুটে আগে মানুষ হওয়ার চেষ্টা করতে হবে। শিক্ষার্থীদেরকে বাবা-মায়ের কথা, শিক্ষকদের কথা মেনে বইকে আকড়ে ধরে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে নতুবা কখনো জীবনে সফলকাম হওয়া যাবে না। বইয়ের সাথে সম্পর্ক গড়তে পারলেই ভালো ফলাফল তথা অ+ পাওয়া এবং উচ্চশিক্ষা অর্জন সম্ভব।

প্রফেসর হরুনূর রশীদ গতকাল ইএসডি ফাউন্ডেশন কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হোস্টেল সুবিধাসহ সিলেটের একমাত্র বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিনির্ভর মহিলা কলেজ উইমেন্স মডেল কলেজের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের একাদশ শ্রেণির ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে প্রধান অতিথি হিসেবে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। তিনি কলেজের বিভিন্ন কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন অচিরেই এ প্রতিষ্ঠান সিলেটে নারী শিক্ষা প্রসারের ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ একটি বিদ্যাপীঠ হিসাবে পরিচিতি পাবে। স্থানীয় কুমারপাড়াস্থ মালঞ্চ কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব প্রণব কান্তি দেব, ইএসডি ফাউন্ডেশনের ট্রাস্টি জনাব রোটারিয়ান মাহবুবুল আলম মিলন। কলেজ অধ্যক্ষ আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদারের সভাপতিত্বে এবং ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক লুবাবা রাহনুম এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা সালেহ আহমদ। অতিথিদের পাশাপাশি শুরুতে নবীণ শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয় উইমেন্স মডেল কলেজের রেঞ্জার ইউনিটের সদস্যরা।



বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর প্রণব কান্তি দেব বলেন উইমেন্স মডেল কলেজের সুশৃঙ্খল নিয়মাবলী এবং অভিজ্ঞ শিক্ষকদের নির্দেশনা ও পাঠদান অনুসরণ করতে পারলে শিক্ষার্থীদের কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন সম্ভব। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, আজকের নবীণ শিক্ষার্থীরা এ কলেজে দু’বছর পড়ালেখার পর অ+ সহ প্রত্যাশিত ফলাফল অর্জন করার পর এ মঞ্চেই যেন তাদের জন্য সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিশেষ অতিথি জনাব রোটারিয়ান মাহবুবুল আলম মিলন বলেন উইমেন্স মডেল কলেজ শুধুমাত্র ভালো পড়াশুনা করায় না, সাথে একজন ছাত্রীকে ভালো মানুষ হতে শেখায়। যদি লক্ষ্য অটুট থাকে তবে অবশ্যই বিজয় নিশ্চিত। এছাড়াও তিনি নবাগত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের অভিবাদন জ্ঞাপন করেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন উইমেন্স মডেল কলেজের কো-অর্ডিনেটর জনাব হাফিজ আহমদ দাউদ। দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুভূতিমূলক বক্তব্য রাখেন দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী রহিমা আক্তার রুবি। নবীণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুভূতিমূলক বক্তব্য রাখেন একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী মাসুমা আক্তার, সামিয়া ও সুমাইয়া। পাশাপাশি অভিভাবকদের পক্ষ থেকে দুইজন মা ও একজন বাবা অনুপ্রেরণামূলক ও আশাব্যঞ্জক বক্তব্য প্রদান করেন।

সভাপতির বক্তব্যে উইমেন্স মডেল কলেজের অধ্যক্ষ জনাব আব্দুল ওয়াদুদ তাপাদার বলেন উইমেন্স মডেল কলেজের শিক্ষকগণ গুণগত শিক্ষা নিশ্চায়নে বদ্ধপরিকর। ভালো রেজাল্টের জন্য অভিভাবকদের ভূমিকা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত। আমাদের পাঠদান পদ্ধতি সু-পরিকল্পনা মাফিক এবং সুষম সিলেবাস বণ্টন ও পরীক্ষা পদ্ধতিই আমাদের ব্যতিক্রমী প্রচেষ্টার উদাহরণ।
আমরা হোম টিউশনীতে বিশ্বাসী না তাই আমাদের কোন ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়তে হয় না। উইমেন্স মডেল কলেজ যাবতীয় জাতীয় দিবস ও বিশেষ দিবস সমূহ যথাযথ সম্মানপ্রদর্শনপূর্বক উদযাপন করে থাকে। এছাড়াও কলেজের অধ্যক্ষ মহোদয় কলেজের নিয়মতন্ত্র ও কার্যবিধি নিয়ে নির্দেশনা দেন। তিনি আরোও বলেন আমরা বিশ্বাস করি শিক্ষক, ছাত্রী ও অভিভাবক এই তিনের সমন্বয়ে অবশ্যই আমরা আমাদের কাঙ্খিত সাফল্য অর্জন করতে পারব। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হয় শিক্ষক পরিচিতি পর্ব এবং শিক্ষার্থীদের মাসিক পাঠপরিকল্পনা ও ক্লাস রুটিন প্রদান করা হয়।

মন্তব্য করতে পারেন...

comments


deshdiganto.com © 2019 কপিরাইট এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত

design and development by : http://webnewsdesign.com