ঢাকা , রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

ইতালিতে পিছিয়ে নেই দুই বাংলাদেশী স্বাস্থ্যকর্মি

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১১:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০
  • / ৬২৫ টাইম ভিউ

নাজমুল হোসেন ইতালি থেকে :

করোনা ভাইরাসে কারণে সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী সকল প্রবাসী যখন বাসায় অবস্থান করছেন টিক সেই সময় ডক্টর নার্সদের সাথে স্বাস্থ সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন দুই বাংলাদেশী প্রবাসী। ইতালির পাদোভা শহরের বাসিন্দা ডক্টর তাহমিদ তিসাদ। করোনা ভাইরাসের সেবা দিতে তিনি বর্তমানে ইতালির ভেরোনা হাসপাতালে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রতিদিন সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ভাইরাসে আক্রান্ত রুগীদের। এক ভিডিও বার্তায় তিনি সকল বাংলাদেশী দের সতর্ক এবং সাবধানে থাকার অনুরুদ জানিয়েছেন এবং অবশ্যই খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তাহমিদ তিশাদের বাবা ছেলের জন্য চিন্তায় থাকলেও নিজে একজন গর্বিত পিতা মনে করেন। তিনি বলেন আমি আমার ছেলে কে যে সেবা দেওয়ার জন্য ডক্টর বানিয়েছে আজ সে তার কর্মস্থলে সেই বাবা দিয়ে যাচ্ছে।
এই দিকে ইতালির ব্রেসিয়া শহরের এমিলি সাহা একজন সেবিকা। তিনি ব্রেসিয়ার একটি হসপিটালে কাজ করছেন কয়েকবছর থেকে। তিনিও এই করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রুগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন একজন নার্স হিসেবে। পরিবারের সবাই দুশ্চিন্তা করলেও তিনি এই মুহূর্তে আক্রান্তদের পাশে থেকে সেবা দিতে পারে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন।
এই দুই প্রবাসী বাংলাদেশী স্বাস্থ কর্মীদের জন্য আমাদের সকল প্রবাসীদের পক্ষ থেকে ক্রতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং দেশের নাম উজ্জ্বল করার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

পোস্ট শেয়ার করুন

ইতালিতে পিছিয়ে নেই দুই বাংলাদেশী স্বাস্থ্যকর্মি

আপডেটের সময় : ১১:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০

নাজমুল হোসেন ইতালি থেকে :

করোনা ভাইরাসে কারণে সরকারের ঘোষণা অনুযায়ী সকল প্রবাসী যখন বাসায় অবস্থান করছেন টিক সেই সময় ডক্টর নার্সদের সাথে স্বাস্থ সেবা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন দুই বাংলাদেশী প্রবাসী। ইতালির পাদোভা শহরের বাসিন্দা ডক্টর তাহমিদ তিসাদ। করোনা ভাইরাসের সেবা দিতে তিনি বর্তমানে ইতালির ভেরোনা হাসপাতালে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রতিদিন সেবা দিয়ে যাচ্ছেন ভাইরাসে আক্রান্ত রুগীদের। এক ভিডিও বার্তায় তিনি সকল বাংলাদেশী দের সতর্ক এবং সাবধানে থাকার অনুরুদ জানিয়েছেন এবং অবশ্যই খুব প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তাহমিদ তিশাদের বাবা ছেলের জন্য চিন্তায় থাকলেও নিজে একজন গর্বিত পিতা মনে করেন। তিনি বলেন আমি আমার ছেলে কে যে সেবা দেওয়ার জন্য ডক্টর বানিয়েছে আজ সে তার কর্মস্থলে সেই বাবা দিয়ে যাচ্ছে।
এই দিকে ইতালির ব্রেসিয়া শহরের এমিলি সাহা একজন সেবিকা। তিনি ব্রেসিয়ার একটি হসপিটালে কাজ করছেন কয়েকবছর থেকে। তিনিও এই করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রুগীদের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন একজন নার্স হিসেবে। পরিবারের সবাই দুশ্চিন্তা করলেও তিনি এই মুহূর্তে আক্রান্তদের পাশে থেকে সেবা দিতে পারে নিজেকে গর্বিত মনে করছেন।
এই দুই প্রবাসী বাংলাদেশী স্বাস্থ কর্মীদের জন্য আমাদের সকল প্রবাসীদের পক্ষ থেকে ক্রতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং দেশের নাম উজ্জ্বল করার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।