ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

‘আর কয়েকটা দিন থাকি বাড়ি, ফোন দিলেই পৌঁছে যাবে খাবার গাড়ী’

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১১:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০
  • / ৫৪৭ টাইম ভিউ

ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ কুলাউড়া থানা পুলিশের বিশেষ উদ্যােগে‘ আর কয়েকটা দিন থাকি বাড়ি, ফোন দিলেই পৌঁছে যাবে খাবার গাড়ী’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দুঃস্থ, দিনমজুর মানুষ যাতে খাবারের জন্য করোনা ভাইরাস বিপর্যয়ের ঝুঁকি নিয়ে ঘরের বাহির না হয় সেজন্য কুলাউড়া থানা প্রশাসন বিশেষ উদ্যােগ নিয়েছে। ফোন পেলেই সেইসকল মানুষের বাড়িতে খাবার নিয়ে যাবে পুলিশ।
মঙ্গলবার থেকে নিজেদের উদ্যাগে ৪ শতাধিক পরিবারের মধ্যে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে থানা পুলিশ।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ তদারকি করবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী।
জানা যায়, উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রান্তিক এলাকার দুঃস্থ, অসহায়, দিনমজুর মানুষের বাড়ি বাড়ি পুলিশের টহল গাড়ি করে খাদ্য সামগ্রীগুলো পৌছে দেয়া হবে। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি লবণ, ১ কেজি পেয়াজ, ১ লিটার তেল ও ১টি সাবান। খাদ্য সামগ্রীর প্রয়োজন হলে কুলাউড়া থানার ওসি’র সরকারি (০১৭১৩-৩৭৪৪৪৩) নাম্বারে ফোন দেয়ার জন্য আহবান জানানো হয়।

কুলাউড়া থানার ওসি তদন্ত সঞ্জয় চক্রবর্ত্তী জানান, নিম্ন আয়ের মানুষ যাতে খাবার সংগ্রেহর জন্য ঝুঁকি নিয়ে ঘরের বাহির না আসে এজন্য তাঁদেরকে সবসময় সচেতন করে আসছি। বিশ্বব্যাপী এই দুর্যোগের সময় এলাকার আইনশৃঙ্খলা ও সচেতনতা কার্যক্রমের পাশাপাশি সাধ্যনুযায়ী অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছি। অসহায় পরিবার দেখে দেখে এসব খাদ্য সামগ্রী দেয়া হচ্ছে । যাদের ঘরে খাবার নেই খবর পেলেই পৌঁছে দিবো। তবুও যেনো সবাই নিরাপদে থাকেন এটাই প্রত্যাশা।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনর্চাজ মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, করোনা পরিস্থিতিতে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের দুঃস্থ মানুষদের থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এই সহায়তা করা হচ্ছে। প্রথমদিন প্রায় অর্ধ শত পরিবারে খাদ্য সহায়তা পাঠানো হয়েছে। এটা অব্যাহত থাকবে। তাছাড়া এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান তিনি।

পোস্ট শেয়ার করুন

‘আর কয়েকটা দিন থাকি বাড়ি, ফোন দিলেই পৌঁছে যাবে খাবার গাড়ী’

আপডেটের সময় : ১১:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০

ছয়ফুল আলম সাইফুলঃ কুলাউড়া থানা পুলিশের বিশেষ উদ্যােগে‘ আর কয়েকটা দিন থাকি বাড়ি, ফোন দিলেই পৌঁছে যাবে খাবার গাড়ী’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে দুঃস্থ, দিনমজুর মানুষ যাতে খাবারের জন্য করোনা ভাইরাস বিপর্যয়ের ঝুঁকি নিয়ে ঘরের বাহির না হয় সেজন্য কুলাউড়া থানা প্রশাসন বিশেষ উদ্যােগ নিয়েছে। ফোন পেলেই সেইসকল মানুষের বাড়িতে খাবার নিয়ে যাবে পুলিশ।
মঙ্গলবার থেকে নিজেদের উদ্যাগে ৪ শতাধিক পরিবারের মধ্যে এই খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে থানা পুলিশ।

খাদ্যসামগ্রী বিতরণ তদারকি করবেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওসার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইয়ারদৌস হাসান, ওসি (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী।
জানা যায়, উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রান্তিক এলাকার দুঃস্থ, অসহায়, দিনমজুর মানুষের বাড়ি বাড়ি পুলিশের টহল গাড়ি করে খাদ্য সামগ্রীগুলো পৌছে দেয়া হবে। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ৫ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি লবণ, ১ কেজি পেয়াজ, ১ লিটার তেল ও ১টি সাবান। খাদ্য সামগ্রীর প্রয়োজন হলে কুলাউড়া থানার ওসি’র সরকারি (০১৭১৩-৩৭৪৪৪৩) নাম্বারে ফোন দেয়ার জন্য আহবান জানানো হয়।

কুলাউড়া থানার ওসি তদন্ত সঞ্জয় চক্রবর্ত্তী জানান, নিম্ন আয়ের মানুষ যাতে খাবার সংগ্রেহর জন্য ঝুঁকি নিয়ে ঘরের বাহির না আসে এজন্য তাঁদেরকে সবসময় সচেতন করে আসছি। বিশ্বব্যাপী এই দুর্যোগের সময় এলাকার আইনশৃঙ্খলা ও সচেতনতা কার্যক্রমের পাশাপাশি সাধ্যনুযায়ী অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোর প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছি। অসহায় পরিবার দেখে দেখে এসব খাদ্য সামগ্রী দেয়া হচ্ছে । যাদের ঘরে খাবার নেই খবর পেলেই পৌঁছে দিবো। তবুও যেনো সবাই নিরাপদে থাকেন এটাই প্রত্যাশা।

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনর্চাজ মো. ইয়ারদৌস হাসান জানান, করোনা পরিস্থিতিতে উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের দুঃস্থ মানুষদের থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এই সহায়তা করা হচ্ছে। প্রথমদিন প্রায় অর্ধ শত পরিবারে খাদ্য সহায়তা পাঠানো হয়েছে। এটা অব্যাহত থাকবে। তাছাড়া এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের পাশে সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান তিনি।