ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
লিসবনে আত্মপ্রকাশ হয় সামাজিক সংগঠন “গোলাপগঞ্জ কমিউনিটি কেয়ারর্স পর্তুগাল “ উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল

মৌলভীবাজারে ক্যাপ্টেন ইমদাদ আর আকাশে উড়বেন না

ছয়ফুল আলম সাইফুল, মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ
  • আপডেটের সময় : ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯
  • / ১০৫৪ টাইম ভিউ

ছয়ফুল আলম সাইফুল, মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ বোয়িং-৭৭৭ নিয়ে আর আকাশে উড়বেন না বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পাইলট ক্যাপ্টেন ইমদাদ (৫২)। শনিবার (৯ মার্চ) ব্যাংককের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানীয় সময় রাত ১০টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি স্কিন ক্যান্সারে ভুগছিলেন।

ক্যাপ্টেন ইমদাদ ১৯৬২ সালের ১৫ মার্চ মৌলভীবাজারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৫ সালে ফাস্ট অফিসার হিসেবে বিমানে যোগ দেন। রোববার (১০ মার্চ) তার মরদেহ ঢাকায় আনা হয়। এরপর উত্তরা জামে মসজিদে জানাজা শেষে ৪ নং সেক্টর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

এদিকে বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল (অব.) মুহাম্মদ ইনামুল বারী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ এবং ইফালপার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্যাপ্টেন ইশতিয়াক হোসেন ক্যাপ্টেন ইমদাদুলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ এবং তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

এছাড়া তার অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পাইলট অ্যাসোসিয়েশন (বাপা)। সভাপতি ক্যাপ্টেন মাহবুব বাপার পক্ষ থেকে ক্যাপ্টেন ইমদাদুলের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ক্যাপ্টেন ইমদাদ ছিলেন বিনয়ী, সদালাপী এবং সদাচারী। পেশাগত জীবনে ছিলেন দক্ষ ও মেধাবী পাইলট। তার অকাল মৃত্যুতে বিমান পাইলট অ্যাসোসিয়েশন একজন ভালো মনের সহকর্মীকে হারালো। তার চলে যাওয়ায় বিমানের এবং বাপার বড় ধরনের ক্ষতি হলো।তাহার বাড়ী মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের ডাঃ রফিকুল হকের ছেলে। তিনি ১৯৯৫ সালে ফাস্ট অফিসার হিসেবে বিমানে যোগ দেন।

পোস্ট শেয়ার করুন

মৌলভীবাজারে ক্যাপ্টেন ইমদাদ আর আকাশে উড়বেন না

আপডেটের সময় : ০৩:৫৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০১৯

ছয়ফুল আলম সাইফুল, মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ বোয়িং-৭৭৭ নিয়ে আর আকাশে উড়বেন না বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের পাইলট ক্যাপ্টেন ইমদাদ (৫২)। শনিবার (৯ মার্চ) ব্যাংককের একটি বেসরকারি হাসপাতালে স্থানীয় সময় রাত ১০টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি স্কিন ক্যান্সারে ভুগছিলেন।

ক্যাপ্টেন ইমদাদ ১৯৬২ সালের ১৫ মার্চ মৌলভীবাজারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৯৫ সালে ফাস্ট অফিসার হিসেবে বিমানে যোগ দেন। রোববার (১০ মার্চ) তার মরদেহ ঢাকায় আনা হয়। এরপর উত্তরা জামে মসজিদে জানাজা শেষে ৪ নং সেক্টর কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

এদিকে বিমান পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান এয়ার মার্শাল (অব.) মুহাম্মদ ইনামুল বারী, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ এবং ইফালপার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্যাপ্টেন ইশতিয়াক হোসেন ক্যাপ্টেন ইমদাদুলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ এবং তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

এছাড়া তার অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পাইলট অ্যাসোসিয়েশন (বাপা)। সভাপতি ক্যাপ্টেন মাহবুব বাপার পক্ষ থেকে ক্যাপ্টেন ইমদাদুলের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ক্যাপ্টেন ইমদাদ ছিলেন বিনয়ী, সদালাপী এবং সদাচারী। পেশাগত জীবনে ছিলেন দক্ষ ও মেধাবী পাইলট। তার অকাল মৃত্যুতে বিমান পাইলট অ্যাসোসিয়েশন একজন ভালো মনের সহকর্মীকে হারালো। তার চলে যাওয়ায় বিমানের এবং বাপার বড় ধরনের ক্ষতি হলো।তাহার বাড়ী মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের ডাঃ রফিকুল হকের ছেলে। তিনি ১৯৯৫ সালে ফাস্ট অফিসার হিসেবে বিমানে যোগ দেন।