ঢাকা , শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর মুটো ফোনের আসক্তি দূর করবেন যেভাবে… এই অভ্যাসগুলোর চর্চা নিয়মিত করা উচিৎ স্বামী-স্ত্রীর বয়সের পার্থক্য থাকা জরুরি কেনো ? পুনাক এর উদ্যোগে দুস্হ ও অসহায় নারীদের মাঝে সেলাই মেশিন বিতরন করা হয়েছে কুলাউড়ার টিলাগাঁও এ সরকারি গাছ বিক্রি করলেন প্রধান শিক্ষক লটারি বাইক জিতলো মা’ সে কারণে কপাল পুড়লো মেয়ের ফজরের নামাজে যাওয়ার সময় রাস্তায় কুকুর দলের আক্রমনে প্রান গেলো ইজাজুলের সাবেক সাংসদ সেলিমা আহমাদ মেরীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামিলীগের মতবিনিময় সভা

আমেরিকান প্রবাসীদের উদ্যোগে স্থাপিত হচ্ছে কুলাউড়ায় অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৮:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • / ৫৪৭ টাইম ভিউ

গত দুই বছর যাবত প্রবাসে এবং দেশে আলোচনা চলছিলো লাশ রাখার ঘর স্হাপনার জন্য । এবং তারই ধারাবাহিকতায় কুলাউড়া উপজেলার আমেরিকা প্রবাসীরা উদ্যোগ নেন মৃত ব্যক্তির লাশ সংরক্ষনের জন্য “লাশ রাখার ঘর” স্থাপন করার জন্য ।
আর এই মহৎ উদ্দ্যোগ কে স্বাগত জানিয়ে এগিয়ে আসে >ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত কুলাউড়ার প্রবাসীরা ।বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্হানরত কৃতিসন্তানদের উদ্যোগে এবং অর্থায়নে স্থাপিত হচ্ছে অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ (হিমাগার)। পৌরশহরের উত্তরবাজারের আহমদাবাদ এলাকায় আহমদাবাদ দারুসুন্নাহ মাদরাসা ও এতিমখানায় এই ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ কক্ষ স্থাপনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

প্রবাসী অধ্যুষিত মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা অনেক প্রবাসীদের পরিবারের কেউ বা কোন স্বজন মৃত্যবরন করলে বিমানের ফ্লাইট জটিলতার কারণে মৃত স্বজনকে শেষ বারে মতো দেখতে ও জানাজা এবং দাফনে অংশগ্রহনের জন্য দেশে আসতে বিলম্ব হয় প্রতিনিয়তই।
জেলা কিংবা কুলাউড়ায় কোন ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ না থাকায় সিলেটে বেসরকারি হাসপাতালের হিমাগারে মরদেহ রাখতে হয়। যা অত্যন্ত ব্যায়বহুল ও কষ্টসাধ্য, অনেক সময় সেখানেও জায়গা থাকেনা ।
এজন্য অনেক প্রবাসী তাঁর প্রিয় মানুষটিকে নিজ হাতে দাফন করবে ও শেষ দেখা দেখবে সেই ইচ্ছা অপূর্ন থেকে যায় ।এছাড়াও প্রাকৃতিক দূর্যোগ কিংবা অন্যান্য কারণে দাফন করতে বিলম্ব হলে লাশ সংরক্ষণাগারের অভাবে মৃত ব্যক্তির স্বজনদের পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। এমতাবস্থায় কুলাউড়া প্রবাসীদের সহযোগিতায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ স্থাপনে সার্বিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে সম্প্রতি নিউইয়র্কের কুইন্সে কমিউনিটি নেতা মো. তজম্মুল আলীর বাসভবনে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কমিউনিটি লিডার লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলাল, মো. তজম্মুল আলী, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল (অব.) শফি আহমদ, এনামুল ইসলাম, শাহেদ দেলোয়ার চৌধুরী, রাশেদুল মান্নান চৌধুরী হেশাম, কুলাউড়া এসোসিয়েশন ইউএস ইনকের সভাপতি আশরাফ আহমেদ (ইকবাল), জাবেদ খসরু,জাবেদ আহমদ, আলাউদ্দিন আহমদ,ময়নুর রহমান সোয়েব,আলতাফ আহমদ প্রমুখ।

বৈশ্বিক করোনা সংক্রমণ রোধে বৃহৎ সভা ও জমায়াতে নিষেধারোপ থাকায় এবং যানবাহনের যাতায়াতে সীমাবদ্ধতা থাকায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেট থেকে সভায় উপস্থিত হতে পারেন নি অনেকেই ।এজন্য অডিও ও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশ নেন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা আব্দুল জলিল, আব্দুল কাইয়ূম, সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুল গণি,আব্দুল হক, আবুল কালাম, আব্দুস সালাম, ডাঃ মুজিব, ডাঃ মুকিত, সিরাজ উদ্দিন সোহাগ, মঈন আহমদ, জিতু আহমদ, তানউযুর শামীম লোবান, লিটন আহমদ, মুকিত চৌধুরী, মোশাহিদ জে রাশেদ, জিতু আহমদ, শাহীন আহমদ, কুলাউড়া এসোসিয়েশন ইউএসএ ইনকের এনায়েত হোসেন জালাল , মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব সৈয়দ খসরু, । তাঁরা সকলেই সভায় বিষয়টি বাস্তবায়নে নেওয়া সিদ্ধন্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

সভায় সবার সিদ্ধান্তক্রমে ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ স্থাপন প্রকল্প বাস্তবায়নে একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে প্রবাসী কমিউনিটি নেতা ও রাজনীতিবিদ লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলালকে আহ্বায়ক ও অন্যান্যদের সদস্য করে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে। এছাড়াও নিউইয়র্ক প্রবাসী কমিউনিটি নেতা এনামুল ইসলামকে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সমন্বয়ক করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে কুলাউড়া প্রবাসীরা স্বেচ্ছায় আর্থিক সহযোগিতা পাঠাতে পারেন সেজন্য এনামুল ইসলাম ও আহমদাবাদ মাদরাসার অধ্যক্ষ হাফিজ মাওলানা ইমরান আহমদসহ মোট তিনজনের সমন্বয় করে একটি ব্যাংকে জয়েন্ট একাউন্ট খোলা হবে।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সকল উদ্যাক্তারা সারা বিশ্বে থাকা কুলাউড়া প্রবাসীদের সাথে পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন দেশে যোগাযোগ করে সহযোগিতার জন্য আহবান করা হবে এবং ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ কক্ষের পরচালনা ও বৈদ্যুতিক বিলসহ অন্যান্য ব্যয়ভার বহনের পরিকল্পনা নেওয়া হয় সভায়।

পোস্ট শেয়ার করুন

আমেরিকান প্রবাসীদের উদ্যোগে স্থাপিত হচ্ছে কুলাউড়ায় অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার

আপডেটের সময় : ০৮:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০

গত দুই বছর যাবত প্রবাসে এবং দেশে আলোচনা চলছিলো লাশ রাখার ঘর স্হাপনার জন্য । এবং তারই ধারাবাহিকতায় কুলাউড়া উপজেলার আমেরিকা প্রবাসীরা উদ্যোগ নেন মৃত ব্যক্তির লাশ সংরক্ষনের জন্য “লাশ রাখার ঘর” স্থাপন করার জন্য ।
আর এই মহৎ উদ্দ্যোগ কে স্বাগত জানিয়ে এগিয়ে আসে >ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাসরত কুলাউড়ার প্রবাসীরা ।বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্হানরত কৃতিসন্তানদের উদ্যোগে এবং অর্থায়নে স্থাপিত হচ্ছে অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ (হিমাগার)। পৌরশহরের উত্তরবাজারের আহমদাবাদ এলাকায় আহমদাবাদ দারুসুন্নাহ মাদরাসা ও এতিমখানায় এই ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ কক্ষ স্থাপনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

প্রবাসী অধ্যুষিত মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে থাকা অনেক প্রবাসীদের পরিবারের কেউ বা কোন স্বজন মৃত্যবরন করলে বিমানের ফ্লাইট জটিলতার কারণে মৃত স্বজনকে শেষ বারে মতো দেখতে ও জানাজা এবং দাফনে অংশগ্রহনের জন্য দেশে আসতে বিলম্ব হয় প্রতিনিয়তই।
জেলা কিংবা কুলাউড়ায় কোন ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ না থাকায় সিলেটে বেসরকারি হাসপাতালের হিমাগারে মরদেহ রাখতে হয়। যা অত্যন্ত ব্যায়বহুল ও কষ্টসাধ্য, অনেক সময় সেখানেও জায়গা থাকেনা ।
এজন্য অনেক প্রবাসী তাঁর প্রিয় মানুষটিকে নিজ হাতে দাফন করবে ও শেষ দেখা দেখবে সেই ইচ্ছা অপূর্ন থেকে যায় ।এছাড়াও প্রাকৃতিক দূর্যোগ কিংবা অন্যান্য কারণে দাফন করতে বিলম্ব হলে লাশ সংরক্ষণাগারের অভাবে মৃত ব্যক্তির স্বজনদের পড়তে হয় বিড়ম্বনায়। এমতাবস্থায় কুলাউড়া প্রবাসীদের সহযোগিতায় শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অত্যাধুনিক ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ স্থাপনে সার্বিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে সম্প্রতি নিউইয়র্কের কুইন্সে কমিউনিটি নেতা মো. তজম্মুল আলীর বাসভবনে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কমিউনিটি লিডার লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলাল, মো. তজম্মুল আলী, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লে. কর্নেল (অব.) শফি আহমদ, এনামুল ইসলাম, শাহেদ দেলোয়ার চৌধুরী, রাশেদুল মান্নান চৌধুরী হেশাম, কুলাউড়া এসোসিয়েশন ইউএস ইনকের সভাপতি আশরাফ আহমেদ (ইকবাল), জাবেদ খসরু,জাবেদ আহমদ, আলাউদ্দিন আহমদ,ময়নুর রহমান সোয়েব,আলতাফ আহমদ প্রমুখ।

বৈশ্বিক করোনা সংক্রমণ রোধে বৃহৎ সভা ও জমায়াতে নিষেধারোপ থাকায় এবং যানবাহনের যাতায়াতে সীমাবদ্ধতা থাকায় যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন স্টেট থেকে সভায় উপস্থিত হতে পারেন নি অনেকেই ।এজন্য অডিও ও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশ নেন প্রবাসী কমিউনিটি নেতা আব্দুল জলিল, আব্দুল কাইয়ূম, সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুল গণি,আব্দুল হক, আবুল কালাম, আব্দুস সালাম, ডাঃ মুজিব, ডাঃ মুকিত, সিরাজ উদ্দিন সোহাগ, মঈন আহমদ, জিতু আহমদ, তানউযুর শামীম লোবান, লিটন আহমদ, মুকিত চৌধুরী, মোশাহিদ জে রাশেদ, জিতু আহমদ, শাহীন আহমদ, কুলাউড়া এসোসিয়েশন ইউএসএ ইনকের এনায়েত হোসেন জালাল , মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব সৈয়দ খসরু, । তাঁরা সকলেই সভায় বিষয়টি বাস্তবায়নে নেওয়া সিদ্ধন্তের প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন।

সভায় সবার সিদ্ধান্তক্রমে ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ স্থাপন প্রকল্প বাস্তবায়নে একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে প্রবাসী কমিউনিটি নেতা ও রাজনীতিবিদ লুৎফুর রহমান চৌধুরী হেলালকে আহ্বায়ক ও অন্যান্যদের সদস্য করে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে। এছাড়াও নিউইয়র্ক প্রবাসী কমিউনিটি নেতা এনামুল ইসলামকে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সমন্বয়ক করা হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে কুলাউড়া প্রবাসীরা স্বেচ্ছায় আর্থিক সহযোগিতা পাঠাতে পারেন সেজন্য এনামুল ইসলাম ও আহমদাবাদ মাদরাসার অধ্যক্ষ হাফিজ মাওলানা ইমরান আহমদসহ মোট তিনজনের সমন্বয় করে একটি ব্যাংকে জয়েন্ট একাউন্ট খোলা হবে।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সকল উদ্যাক্তারা সারা বিশ্বে থাকা কুলাউড়া প্রবাসীদের সাথে পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন দেশে যোগাযোগ করে সহযোগিতার জন্য আহবান করা হবে এবং ‘লাশ সংরক্ষণাগার’ কক্ষের পরচালনা ও বৈদ্যুতিক বিলসহ অন্যান্য ব্যয়ভার বহনের পরিকল্পনা নেওয়া হয় সভায়।