ঢাকা , বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
উচ্ছ্বাস আর আনন্দে বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখের উদযাপন করেছে পর্তুগাল যথাযথ গাম্ভীর্যের মধ্যে দিয়ে পরিবেশে মুসলমানদের ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর পালন করেছে ভেনিস প্রবাসীরা ভেনিসে বৃহত্তর সিলেট সমিতির আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত এক অসুস্থ প্রজন্ম কে সাথি করে এগুচ্ছি আমরা রিডানডেন্ট ক্লোথিং আর মজুর মামার ‘বিশ্বকাপ’ ইউরোপের সবচেয়ে বড় ঈদুল ফিতরের নামাজ পর্তুগালে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য আয়োজনে পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাবের ইফতার ও দোয়া মাহফিল সম্পন্ন ঈদের কাপড় কিনার জন্য মা’য়ের উপর অভিমান করে মেয়ের আত্মহত্যা লিসবনে বন্ধু মহলের আয়োজনে বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিল মান অভিমান ভুলে সবাই একই প্লাটফর্মে,সংবাদ সম্মেলনে পর্তুগাল বিএনপির নবগঠিত আহবায়ক কমিটি

‘আমাদের ধারাবাহিক নাটকে গল্পের খুব সংকট’

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ
  • আপডেটের সময় : ০৯:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯
  • / ৭৪৩ টাইম ভিউ

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ রোজা রেখেই প্রতিদিন শুটিং করছি। ছোটবেলা থেকে রোজা রাখি। এবার সবক’টি রোজা রাখার ইচ্ছা আছে। আমি আমার কাজ ও ধর্ম দু’টি বিষয়কেই সমানভাবে দেখি। কথাগুলো বলছিলেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঈশানা। এই পর্দাকন্যা এরইমধ্যে আসছে ঈদের জন্য কেনাকাটার কাজও শেষ করেছেন বলে জানান। আগামী মাসের এক তারিখ পর্যন্ত ঈদের নাটকের শুটিং করবেন ঈশানা। তিনি বলেন, জুন মাসের এক তারিখ পর্যন্ত সিডিউল দিয়ে রেখেছি। ঈদের কয়েকদিন আগেই সব কাজ শেষ করতে চাই। ঈদের কেনাকাটা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবার রমজানের শুরুতেই ঈদের বেশির ভাগ কেনাকাট শেষ করেছি। অল্প কিছু বাকি আছে। সেগুলো শুটিংয়ের ফাঁকে ফাঁকে করব। ঈদ ঢাকাতেই করব। বুধবার মান্নান হীরার ‘প্রাণ ভ্রমরা’ শিরোনামের একটি নাটকের শুটিং করেন এই অভিনেত্রী। এটি বাংলাদেশ টেলিভিশনে ঈদের জন্য নির্মাণ হচ্ছে। এই নাটকে ঈশানাকে দেখা যাবে একজন চিত্রশিল্পীর ভূমিকায়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রের নাটকে অভিনয় করতে। এখানেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। নাটকটিতে চিত্রশিল্পীর চরিত্রে অভিনয় করেছি। এটি আমার কাছে নতুন। তাই এই নাটকে অভিনয় করা হয়েছে। এটি ছাড়াও ঈদে ঈশানাকে ৭/৮টি খণ্ড নাটকে দেখা যাবে। এছাড়া সাত পর্বের একটি ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। নাটকের নাম ’স্কাইম্যান’। এটি ঈদে নাগরিক টিভিতে প্রচার হবে। নাটকটি নির্মাণ করেছেন মৃত্তিক মিরাজ। ঈদের নাটকের বাইরে এই অভিনেত্রী ধারাবাহিক নাটকেও বেশ ব্যস্ত। তার হাতে আছে সৈয়দ শাকিলের ‘উল্টো স্রোত’, দেওয়ান নাজমুলের ‘সুয়োরানী দুয়োরানী’, মীর সাব্বিরের ‘নোয়াশাল’ ও ‘নিউটনের তৃতীয় সূত্র’। প্রতিটি ধারাবাহিকে ঈশানা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। এই সময়ের ধারাবাহিকে কাজ করে তিনি কতটা তৃপ্ত? এই প্রশ্নের উত্তরে ঈশানা বলেন, তৃপ্ত হওয়ার জন্য অনেক বিষয় থাকতে হয়। আমরা এখন সেই বিষয়গুলো পাচ্ছি না। এখন আমাদের ধারাবাহিক নাটকে গল্পের খুব সংকট। এছাড়া একক নাটকগুলোও বেশি হচ্ছে ত্রিভুজ প্রেমের। পাশের দেশের সিরিয়ালের প্রতি আমাদের দেশের দর্শকের দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে। অথচ আমাদের এত শিল্পী-নির্মাতা থাকতেও দর্শকদের ভালো কিছু দিতে পারছি না। এটি আমাদের ব্যর্থতা। টিভি নাটকে এই সময়ে কোন বিষয়গুলোকে প্রতিবন্ধকতা বলে মনে করেন ঈশানা। এই প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়কে প্রতিবন্ধকতা বলা যাবে না। এখানে অনেক বিষয় জড়িত আছে। একদিকে আমাদের বাজেট সংকট। অন্য দিকে ভালো স্ক্রিপ্টের অভাব রয়েছে। তবে আমাদের অনেক মেধাবী স্ক্রিপ্ট রাইটার আছেন। বাজেটসহ বিভিন্ন সমস্যার কারণে তাদের কাজে লাগানো সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়া শুটিংয়ের সময় পুরো ইউনিটকে নির্মাতাদের আরো গুছিয়ে রাখতে হবে। অনেক সময় দেখা যায়, একজন শিল্পী স্পটে উপস্থিত। কিন্তু অন্য শিল্পী উপস্থিত নেই। কিংবা তখনো সব কিছু সাজানো হয়নি বলে শুটিং শুরু করতে বিলম্ব হচ্ছে। আগে থেকে সঠিক পরিকলল্পা থাকলে এই সমস্যাগুলোর সমাধান সম্ভব। আজকের আলাপনে ঈশানার বিয়ের প্রসঙ্গ নিয়েও কথা হয়। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, বিয়ে কবে করছেন? ঈশানা বলেন, এই সময়ে আমাকে সবার কাছ থেকেই এই প্রশ্নটি বেশি শুনতে হয়। বিয়ে অবশ্যই করব। কিন্তু সেটির জন্য একটু অপেক্ষা করতে হবে। হুট করে বিয়েটা করলাম। তারপর আবার আলাদা হয়ে গেলাম। এমন যেন না হয়। তাই ভেবে-চিন্তে জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটা নিব।

পোস্ট শেয়ার করুন

‘আমাদের ধারাবাহিক নাটকে গল্পের খুব সংকট’

আপডেটের সময় : ০৯:৪৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্কঃ রোজা রেখেই প্রতিদিন শুটিং করছি। ছোটবেলা থেকে রোজা রাখি। এবার সবক’টি রোজা রাখার ইচ্ছা আছে। আমি আমার কাজ ও ধর্ম দু’টি বিষয়কেই সমানভাবে দেখি। কথাগুলো বলছিলেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঈশানা। এই পর্দাকন্যা এরইমধ্যে আসছে ঈদের জন্য কেনাকাটার কাজও শেষ করেছেন বলে জানান। আগামী মাসের এক তারিখ পর্যন্ত ঈদের নাটকের শুটিং করবেন ঈশানা। তিনি বলেন, জুন মাসের এক তারিখ পর্যন্ত সিডিউল দিয়ে রেখেছি। ঈদের কয়েকদিন আগেই সব কাজ শেষ করতে চাই। ঈদের কেনাকাটা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এবার রমজানের শুরুতেই ঈদের বেশির ভাগ কেনাকাট শেষ করেছি। অল্প কিছু বাকি আছে। সেগুলো শুটিংয়ের ফাঁকে ফাঁকে করব। ঈদ ঢাকাতেই করব। বুধবার মান্নান হীরার ‘প্রাণ ভ্রমরা’ শিরোনামের একটি নাটকের শুটিং করেন এই অভিনেত্রী। এটি বাংলাদেশ টেলিভিশনে ঈদের জন্য নির্মাণ হচ্ছে। এই নাটকে ঈশানাকে দেখা যাবে একজন চিত্রশিল্পীর ভূমিকায়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রের নাটকে অভিনয় করতে। এখানেও এর ব্যতিক্রম হয়নি। নাটকটিতে চিত্রশিল্পীর চরিত্রে অভিনয় করেছি। এটি আমার কাছে নতুন। তাই এই নাটকে অভিনয় করা হয়েছে। এটি ছাড়াও ঈদে ঈশানাকে ৭/৮টি খণ্ড নাটকে দেখা যাবে। এছাড়া সাত পর্বের একটি ধারাবাহিকেও অভিনয় করেছেন এই অভিনেত্রী। নাটকের নাম ’স্কাইম্যান’। এটি ঈদে নাগরিক টিভিতে প্রচার হবে। নাটকটি নির্মাণ করেছেন মৃত্তিক মিরাজ। ঈদের নাটকের বাইরে এই অভিনেত্রী ধারাবাহিক নাটকেও বেশ ব্যস্ত। তার হাতে আছে সৈয়দ শাকিলের ‘উল্টো স্রোত’, দেওয়ান নাজমুলের ‘সুয়োরানী দুয়োরানী’, মীর সাব্বিরের ‘নোয়াশাল’ ও ‘নিউটনের তৃতীয় সূত্র’। প্রতিটি ধারাবাহিকে ঈশানা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। এই সময়ের ধারাবাহিকে কাজ করে তিনি কতটা তৃপ্ত? এই প্রশ্নের উত্তরে ঈশানা বলেন, তৃপ্ত হওয়ার জন্য অনেক বিষয় থাকতে হয়। আমরা এখন সেই বিষয়গুলো পাচ্ছি না। এখন আমাদের ধারাবাহিক নাটকে গল্পের খুব সংকট। এছাড়া একক নাটকগুলোও বেশি হচ্ছে ত্রিভুজ প্রেমের। পাশের দেশের সিরিয়ালের প্রতি আমাদের দেশের দর্শকের দিন দিন আগ্রহ বাড়ছে। অথচ আমাদের এত শিল্পী-নির্মাতা থাকতেও দর্শকদের ভালো কিছু দিতে পারছি না। এটি আমাদের ব্যর্থতা। টিভি নাটকে এই সময়ে কোন বিষয়গুলোকে প্রতিবন্ধকতা বলে মনে করেন ঈশানা। এই প্রসঙ্গে তার ভাষ্য, কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়কে প্রতিবন্ধকতা বলা যাবে না। এখানে অনেক বিষয় জড়িত আছে। একদিকে আমাদের বাজেট সংকট। অন্য দিকে ভালো স্ক্রিপ্টের অভাব রয়েছে। তবে আমাদের অনেক মেধাবী স্ক্রিপ্ট রাইটার আছেন। বাজেটসহ বিভিন্ন সমস্যার কারণে তাদের কাজে লাগানো সম্ভব হচ্ছে না। এছাড়া শুটিংয়ের সময় পুরো ইউনিটকে নির্মাতাদের আরো গুছিয়ে রাখতে হবে। অনেক সময় দেখা যায়, একজন শিল্পী স্পটে উপস্থিত। কিন্তু অন্য শিল্পী উপস্থিত নেই। কিংবা তখনো সব কিছু সাজানো হয়নি বলে শুটিং শুরু করতে বিলম্ব হচ্ছে। আগে থেকে সঠিক পরিকলল্পা থাকলে এই সমস্যাগুলোর সমাধান সম্ভব। আজকের আলাপনে ঈশানার বিয়ের প্রসঙ্গ নিয়েও কথা হয়। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, বিয়ে কবে করছেন? ঈশানা বলেন, এই সময়ে আমাকে সবার কাছ থেকেই এই প্রশ্নটি বেশি শুনতে হয়। বিয়ে অবশ্যই করব। কিন্তু সেটির জন্য একটু অপেক্ষা করতে হবে। হুট করে বিয়েটা করলাম। তারপর আবার আলাদা হয়ে গেলাম। এমন যেন না হয়। তাই ভেবে-চিন্তে জীবনের এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটা নিব।