ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
আপডেট :
বাংলাদেশে কোটা আন্দোলনে হত্যার প্রতিবাদে পর্তুগালে বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশী প্রবাসীরা প্রিয়জনদের মানসিক রোগ যদি আপনজন বুঝতে না পারেন আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা ও অভিষেক অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা করেছে পর্তুগাল আওয়ামীলীগ যেকোনো প্রচেষ্টা এককভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব নয়: দুদক সচিব শ্রীমঙ্গলে দুটি চোরাই মোটরসাইকেল সহ মিল্টন কুমার আটক পর্তুগালের অভিবাসন আইনে ব্যাপক পরিবর্তন পর্তুগাল বিএনপি আহবায়ক কমিটির জুমে জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয় এমপি আনোয়ারুল আজিমকে হত্যার ঘটনায় আটক তিনজন , এতে বাংলাদেশী মানুষ জড়িত:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকাস্থ ইরান দুতাবাসে রাইসির শোক বইয়ে মির্জা ফখরুলের স্বাক্ষর

অনলাইন পোর্টালের নিবন্ধন শুরু আগামী সপ্তাহে

নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ০৫:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ ডিসেম্বর ২০১৯
  • / ৫৮৩ টাইম ভিউ

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন আগামী সপ্তাহ থেকে অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোর নিবন্ধন দেয়া শুরু হবে। সোমবার (২ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

তিনি বলেন, অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোর নিবন্ধনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করার পর মন্ত্রণালয়ে তিন হাজার ৫৯৭টি দরখাস্ত জমা পড়েছে। সেগুলো তদন্ত করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়সহ একটি সভাও করা হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ইতোমধ্যে কথা হয়েছে, আজ বা কালের মধ্যে তারা কয়েকশ’ অনলাইনের তদন্ত শেষ করেছেন সেগুলো আমাদের কাছে পাঠিয়ে দেবেন। আগামী সপ্তাহ থেকে অনলাইনগুলোর নিবন্ধন দেয়া শুরু হবে।

এ প্রক্রিয়া শেষ করতে কিছুদিন সময় লাগবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, প্রায় তিন হাজার ৬০০ অনলাইনের তদন্ত শেষ করা তো সহজ কাজ নয় এবং কয়েকটি সংস্থা তদন্ত করছে। যে কয়টি আমরা পাব সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিবন্ধন দেয়া শুরু করব।

নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর যেগুলো নিবন্ধিত হবে না সেগুলোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। ভবিষতেও অনলাইন পোর্টাল করার দ্বার উন্মুক্ত রয়েছে এ কথা জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সে জন্য পরবর্তীতে আবার দরখাস্ত আহ্বান করা হবে। কারণ এখন যে অনলাইনগুলো আছে এখানেই শেষ নয়। ভবিষ্যতেও যে কেউ… পত্রিকা যেমন যেকোনো সময় বের করতে পারেন ভবিষ্যতেও অনলাইন বের করতে পারেন।

তবে ভবিষ্যতে অনলাইন পোর্টাল চালু করতে হলে সেটি একটি প্রক্রিয়ায় অনুমতির মাধ্যমে করতে হবে। এখন যেমন চাইলেই কেউ একটা পত্রিকা বের করতে পারে না, তাকে ডিক্লারেশন নিতে হয়, নামের ছাড়পত্র নিতে হয়, অনলাইনের ক্ষেত্রেও একটি প্রক্রিয়া অবলম্বন করেই সেই অনলাইন চালু করা হবে।

এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানান, এখন তো কোনো প্রক্রিয়া অবলম্বন ছাড়া যে কেউ যেকোনো একটি অনলাইন খুলে বসে। দেখা গেল যে ঘরের মধ্যে বসে কয়েকজনে একটি অনলাইন চালায়। ভবিষ্যতেও সেটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করতে হবে।

পোস্ট শেয়ার করুন

অনলাইন পোর্টালের নিবন্ধন শুরু আগামী সপ্তাহে

আপডেটের সময় : ০৫:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ ডিসেম্বর ২০১৯

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন আগামী সপ্তাহ থেকে অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোর নিবন্ধন দেয়া শুরু হবে। সোমবার (২ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।

তিনি বলেন, অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোর নিবন্ধনের জন্য দরখাস্ত আহ্বান করার পর মন্ত্রণালয়ে তিন হাজার ৫৯৭টি দরখাস্ত জমা পড়েছে। সেগুলো তদন্ত করার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। পরবর্তীতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়সহ একটি সভাও করা হয়েছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ইতোমধ্যে কথা হয়েছে, আজ বা কালের মধ্যে তারা কয়েকশ’ অনলাইনের তদন্ত শেষ করেছেন সেগুলো আমাদের কাছে পাঠিয়ে দেবেন। আগামী সপ্তাহ থেকে অনলাইনগুলোর নিবন্ধন দেয়া শুরু হবে।

এ প্রক্রিয়া শেষ করতে কিছুদিন সময় লাগবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, প্রায় তিন হাজার ৬০০ অনলাইনের তদন্ত শেষ করা তো সহজ কাজ নয় এবং কয়েকটি সংস্থা তদন্ত করছে। যে কয়টি আমরা পাব সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিবন্ধন দেয়া শুরু করব।

নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর যেগুলো নিবন্ধিত হবে না সেগুলোর ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। ভবিষতেও অনলাইন পোর্টাল করার দ্বার উন্মুক্ত রয়েছে এ কথা জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সে জন্য পরবর্তীতে আবার দরখাস্ত আহ্বান করা হবে। কারণ এখন যে অনলাইনগুলো আছে এখানেই শেষ নয়। ভবিষ্যতেও যে কেউ… পত্রিকা যেমন যেকোনো সময় বের করতে পারেন ভবিষ্যতেও অনলাইন বের করতে পারেন।

তবে ভবিষ্যতে অনলাইন পোর্টাল চালু করতে হলে সেটি একটি প্রক্রিয়ায় অনুমতির মাধ্যমে করতে হবে। এখন যেমন চাইলেই কেউ একটা পত্রিকা বের করতে পারে না, তাকে ডিক্লারেশন নিতে হয়, নামের ছাড়পত্র নিতে হয়, অনলাইনের ক্ষেত্রেও একটি প্রক্রিয়া অবলম্বন করেই সেই অনলাইন চালু করা হবে।

এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানান, এখন তো কোনো প্রক্রিয়া অবলম্বন ছাড়া যে কেউ যেকোনো একটি অনলাইন খুলে বসে। দেখা গেল যে ঘরের মধ্যে বসে কয়েকজনে একটি অনলাইন চালায়। ভবিষ্যতেও সেটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করতে হবে।