ঢাকা , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অচল বন্দিদের মুক্তি বিষয়ে বিবেচনা করছি

দেশদিগন্ত নিউজ ডেস্ক
  • আপডেটের সময় : ১১:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / ৭৮৭ টাইম ভিউ

দীর্ঘদিন ধরে যারা কারাগারে রয়েছেন এবং অচল হয়ে পড়েছেন, তাদের শনাক্ত করে মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা ও আনুষাঙ্গিক বিষয়ে সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, যারা অচল হয়ে গেছেন, দীর্ঘদিন জেলে আছেন, তাদের কনসিডার করার জন্য। এ ধরনের বন্দিদের আইডেন্টিফাই করে রিলিজ দেওয়া যায় কি না, তার ব্যবস্থা করার জন্য বলেছেন।

এদিকে, সম্প্রতি দুদকের মামলায় ‘ভুল আসামি’ হিসেবে বিনা অপরাধে তিন বছর কারাবরণ করে মুক্তি পেয়েছেন জাহালম। তার মতো এমন কত কারাবন্দি রয়েছেন— জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের একটি সংস্থা আছে, যারা কেউ এভাবে ভিকটিম থাকলে শনাক্ত করার চেষ্টা করে। তবে এ ঘটনার জন্য কে দায়ী, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অনুসন্ধানে যারা দায়ী বলে উঠে আসবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত কয়েকদিনে সীমান্তে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি প্রাণ হারিয়েছেন। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সীমান্তে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড যেন না হয় সে বিষয়ে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। বিএসএফ (ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স) কেন এ ধরনের হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে, সে বিষয়ে আমাদের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি (বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ) আলোচনা করছে।

মন্ত্রী বলেন, গত কয়েক বছর সীমান্তে ‘জিরো কিলিং’ অবস্থান ছিল। কিন্তু নতুন করে কেন এ সমস্যা হচ্ছে, সেটি নিয়ে আরেও উচ্চ পর্যায়ের আলোচনা হবে। এ কিলিং যেন আর না হয়, সেটি নিয়েই আলোচনা করব।

সীমান্ত পেরিয়ে নতুন করে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী আসছে— এ বিষয়ে জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, বিজিবি জানিয়েছে, বর্ডারে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের কিছু দুর্গম এলাকা রয়েছে। সেখানে আমাদের বিজিবি সতর্ক অবস্থানে আছে। যেভাবে আমরা শুনছি, তেমন আসেনি। যারাই আসুক, তাদের আসা বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছি।

পোস্ট শেয়ার করুন

অচল বন্দিদের মুক্তি বিষয়ে বিবেচনা করছি

আপডেটের সময় : ১১:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

দীর্ঘদিন ধরে যারা কারাগারে রয়েছেন এবং অচল হয়ে পড়েছেন, তাদের শনাক্ত করে মুক্তি দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন উপলক্ষে সার্বিক আইনশৃঙ্খলা ও আনুষাঙ্গিক বিষয়ে সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন, যারা অচল হয়ে গেছেন, দীর্ঘদিন জেলে আছেন, তাদের কনসিডার করার জন্য। এ ধরনের বন্দিদের আইডেন্টিফাই করে রিলিজ দেওয়া যায় কি না, তার ব্যবস্থা করার জন্য বলেছেন।

এদিকে, সম্প্রতি দুদকের মামলায় ‘ভুল আসামি’ হিসেবে বিনা অপরাধে তিন বছর কারাবরণ করে মুক্তি পেয়েছেন জাহালম। তার মতো এমন কত কারাবন্দি রয়েছেন— জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমাদের একটি সংস্থা আছে, যারা কেউ এভাবে ভিকটিম থাকলে শনাক্ত করার চেষ্টা করে। তবে এ ঘটনার জন্য কে দায়ী, সেটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অনুসন্ধানে যারা দায়ী বলে উঠে আসবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত কয়েকদিনে সীমান্তে বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি প্রাণ হারিয়েছেন। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সীমান্তে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড যেন না হয় সে বিষয়ে আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। বিএসএফ (ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স) কেন এ ধরনের হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে, সে বিষয়ে আমাদের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি (বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ) আলোচনা করছে।

মন্ত্রী বলেন, গত কয়েক বছর সীমান্তে ‘জিরো কিলিং’ অবস্থান ছিল। কিন্তু নতুন করে কেন এ সমস্যা হচ্ছে, সেটি নিয়ে আরেও উচ্চ পর্যায়ের আলোচনা হবে। এ কিলিং যেন আর না হয়, সেটি নিয়েই আলোচনা করব।

সীমান্ত পেরিয়ে নতুন করে মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী আসছে— এ বিষয়ে জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, বিজিবি জানিয়েছে, বর্ডারে সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের কিছু দুর্গম এলাকা রয়েছে। সেখানে আমাদের বিজিবি সতর্ক অবস্থানে আছে। যেভাবে আমরা শুনছি, তেমন আসেনি। যারাই আসুক, তাদের আসা বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছি।